করোনা পরিস্থিতিতে বন্ধ পরিবহণ, ক্ষতির মুখে মালদার আমচাষিরা

311

গাজোল: ফলন হয়েছে ভালোই। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে বিধিনিষেধের জেরে ব্যবসায় মন্দা চলছে। পরিবহণের অভাব সহ বিভিন্ন কারণে উত্তরবঙ্গ, অসম, বিহার, কলকাতা সহ বিভিন্ন জায়গা থেকে যে সমস্ত পাইকাররা মালদায় আসতেন এবার আসতে পারছেন না তাঁরা। ফলে দাম পাচ্ছেন না আমচাষিরা।

মালদা জেলার অন্যতম আম বাজার আলমপুর হাটে মঙ্গলবার দেখা গেল ল্যাংড়া, হিমসাগর আম বিক্রি হচ্ছে কুইন্টাল প্রতি ৮০০ থেকে ১২০০ টাকা, লক্ষণভোগ ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা, গুটি আম ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা। যে পরিমাণ আম বিক্রির জন্য বাজারে আসছে সেই তুলনায় ক্রেতার সংখ্যা অনেক কম হওয়ায় দাম পাচ্ছেন না আমিচাষিরা। সঠিকভাবে যানবাহন চলাচল করলে দ্বিগুণ দাম পেতেন বলে জানিয়েছেন তাঁরা।

- Advertisement -

আমচাষি অনুপ মণ্ডল, সগেন সরকার, উৎপল সরকার প্রমুখ জানান, এইবছর আমের ফলন ভালোই হয়েছিল। তাই আমের ফলন ভালো হবে, এমনটাই আশা করা হয়েছিল। কিন্তু কার্যত লকডাউনে বিধিনিষেধের জেরে আমচাষিরা ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। হাট-বাজার প্রায় বন্ধ। পরিবহণ ব্যবস্থাও বন্ধ থাকায় দূরদূরান্ত থেকে আম কেনার জন্য যে সমস্ত পাইকাররা আসতেন তারা আসতে পারছেন না। ফলে নামমাত্র দামে বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন তাঁরা। প্রসঙ্গত, এইবছরের তুলনায় গতবছর আমের দ্বিগুণ দাম পেয়েছিলেন চাষিরা। সবমিলিয়ে এইবছর করোনার কোপে আম চাষে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন চাষিরা।