নন্দীগ্রাম থেকে ভোটে দাঁড়ানোর ঘোষণা মমতার

181

নন্দীগ্রাম: ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রাম থেকে ভোটে লড়বেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার নন্দীগ্রামের জনসভা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে নিজেই এই ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। নাম না করে এদিন তিনি কার্যত শুভেন্দু অধিকারীকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন। যদিও মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণাকে কটাক্ষ করেছে বিজেপি।

- Advertisement -

এদিন নন্দীগ্রামের তেখালিতে সভা করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। বক্তব্যের শেষ দিকে তিনি বড় চমক দেন। মমতা হঠাৎই বলেন, ‘আমি নন্দীগ্রামে দাঁড়ালে কেমন হয়? ভাবছিলাম। একটু ইচ্ছে হল। আমি হয়তো সেভাবে সময় দিতে পারব না। কারণ আমাকে ২৯৪টা আসনে লড়তে হবে। আপনারা আপনাদের কাজ করবেন, বাকিটা আমি পরে করে দেব।’ এরপরই মমতা আরও বলেন, ‘নন্দীগ্রাম থেকে আমি দাঁড়াব। আপনাদের আমি বলে গেলাম।’ তৃণমূল নেত্রীর এই বক্তব্যের পর দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি আনুষ্ঠানিক ভাবে নন্দীগ্রাম আসন থেকে প্রার্থী হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম ঘোষণা করেন।

মমতা অবশ্য ইঙ্গিত দিয়েছেন, নিজের বর্তমান কেন্দ্র ভবানীপুর থেকেও লড়তে পারেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ভবানীপুরকেও আমি অবহেলা করব না। নন্দীগ্রাম থেকেই আমি আন্দোলনটা করব। ভবানীপুর আমার বড় বোন, নন্দীগ্রাম মেজ বোন।’ তবে তিনি দাঁড়াতে না পারলেও ভবানীপুরে ভালো প্রার্থী দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

অন্যদিকে, মমতার এই ঘোষণাকে কটাক্ষ করেছেন বিজেপির অমিত মালব্য। টুইটে তিনি লিখেছেন, দশ বছরে এই প্রথমবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভবানীপুরের পরিবর্তে নন্দীগ্রাম আসন থেকে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এতে মমতা কতটা উদ্বিগ্ন, তা বোঝা যাচ্ছে।

পাশাপাশি নন্দীগ্রামে বিক্ষোভরত কৃষকদের ওপর গুলি চালানোয় অভিযুক্ত ও সিবিআই চার্জশিটে নাম থাকা আইপিএস সত্যজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় কীভাবে তৃণমূলে স্থান পেলেন, সেই প্রশ্নও করেছেন অমিত মালব্য।