বাংলা দখল করতে গিয়ে রাজ্যকে করোনা-সংকটে ফেলা হয়েছে, মোদিকে তোপ মমতার

80

দুর্গাপুর: করোনার গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটার পর বড় জনসভায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। সেই কারণে শুক্রবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পশ্চিম বর্ধমান জেলায় পূর্ব নির্ধারিত জনসভা বাতিল করা হয়। তার পরিবর্তে শুক্রবার দুপুরে দুর্গাপুরে একটি সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে সেখানে দেশ ও রাজ্যের বর্তমান করোনা পরিস্থিতির জন্য কেন্দ্রীয় সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে তীব্র আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি দাবি করেন, বাংলা দখল করতে গিয়ে রাজ্যকে করোনা সংকটের মুখে ফেলে দেওয়া হয়েছে। কারণ বিশ্লেষণ করতে গিয়ে তিনি জানান, বিজেপির হেভিওয়েট নেতা ও মন্ত্রীদের ভোটের প্রচারের ব্যবস্থার জন্য রাজ্যে প্রায় ২ লক্ষ বহিরাগতকে ঢোকানো হয়েছে। যাদের কারও কোনও করোনা পরীক্ষা হয়নি। পাশাপাশি ভোটের জন্য আরও প্রায় ২ লক্ষ কেন্দ্রীয় বাহিনী এসেছে বাংলায়। তারাও বাইরে থেকে এসেছে।

- Advertisement -

এর পাশাপাশি শেষ তিন দফার ভোট একসঙ্গে করার আবেদনে সাড়া না দেওয়ায় এদিন নির্বাচন কমিশনকেও দুষেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তিনি বলেন, ‘বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কথা ভেবে শেষ তিনদফার ভোট এক সঙ্গে করলে কী ক্ষতি হতো? কিন্তু সেটা করা হল না। কারণ নির্বাচন কমিশন বিজেপির কথায় চলে।’ নরেন্দ্র মোদিকে তোপ দেগে তিনি আরও বলেন, ‘শুধু ভাষণ দিলে তো হবে না। সময় মতো সব ব্যবস্থা নিতে হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হু আগেই ওষুধ ও অক্সিজেন মজুত রাখার জন্য সতর্ক করেছিল। কিন্তু তা সত্ত্বেও গত ৬ মাস ধরে করোনা মোকাবিলার জন্য কোনওরকম পরিকল্পনা নেওয়া হয়নি। কোনও বৈঠকে রাজ্যগুলিকে সে বিষয়ে জানানো হয়নি।’ এরাজ্যের বর্তমান কোভিড পরিস্থিতি রাজ্য সরকার সামলে নেবে বলেও আশ্বাস দেন তিনি।