তথ্য লোপাট করতেই তাঁকে আটকানো হয়েছে, শিলিগুড়িতে তোপ মমতার

150
সংগৃহীত

শিলিগুড়ি: শীতলকুচিতে গণহত্যা হয়েছে। তারপর তথ্য লোপাট করতেই তাঁকে আটকানো হয়েছে। রবিবার শিলিগুড়িতে সাংবাদিক সম্মেলন থেকে এমনটাই দাবি করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ভিডিও কলে শীতলকুচিতে মৃতের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন মুখ্যমন্ত্রী। শনিবার বিকেলেই শীতলকুচি যাওয়ার জন্য শিলিগুড়িতে পৌঁছে যান মমতা। কিন্তু রাতেই নির্দেশিকা দিয়ে কমিশন জানিয়ে দেয়, ৭২ ঘণ্টার জন্য কোনও রাজনৈতিক নেতৃত্ব বাইরে থেকে শীতলকুচি যেতে পারবেন না। মমতার দাবি, নির্বাচন কমিশনের এই সিদ্ধান্ত নজিরবিহীন। আমি নির্বাচন কমিশনকে শ্রদ্ধা করি। কিন্তু সব নিয়ম বদলে দিলে তা মেনে নেওয়া যায় না। একটা দলের নির্দেশে সব নিয়ম বদলে যাওয়া ঠিক না বলে জানান তিনি। কমিশনকে তোপ দেগে মমতা জানান, তিনি ১৪ এপ্রিল নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করবেন।

নির্বাচন কমিশনকে কটাক্ষ করে মমতার তোপ, এমসিসি এখন বিজেপি কোড অফ কনডাক্ট হয়ে গিয়েছে। আজকের দিনটি কালোদিন হিসেবে পালন করছে তৃণমূল। ব্লকে ব্লকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে মিছিলও করা হয়। প্রধানমন্ত্রী এই ঘটনায় কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ক্লিনচিট দেওয়ায় তারও সমালোচনা করেন মমতা। তাঁর দাবি, প্রধানমন্ত্রী সিআইএসএফকে ক্লিনচিট দিচ্ছেন, যার অর্থ তারা হাসতে হাসতে মানুষকে হত্যা করতে পারে। কোচবিহারের এসপি বিজেপির মুখপাত্রের মতো অভিনয় করছেন বলেও এদিন সরব হন মমতা। তিনি বলেন, ‘আমাদের সরকার ফিরে এলে আমি এটা দেখব।’

- Advertisement -