দেবশ্রী রায়কে নিয়ে ক্ষোভ ছিল তাই প্রার্থী করিনি: মমতা

90
ছবি: সৌজন্যে ফেসবুক

কলকাতা: দেবশ্রী রায়কে নিয়ে ক্ষোভ ছিল, তাই ওকে প্রার্থী করিনি। আর সেই রাগেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছে। কলকাতা থেকে এত দূরে আসতে পারতেন না। শনিবার রায়দিঘিতে জনসভায় এমনটাই বললেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পাশাপাশি তিনি জানান, এখন সুন্দরবনের অনেক উন্নতি হয়েছে। যাঁরা স্বাস্থ্যসাথী পাননি, তাঁদের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়া হবে। আমপানে যাঁরা এখনও সাহায্য পাননি তাঁদের সাহায্য করা হবে। তৃণমূল সরকার ১০ বছরে যা করেছে কোনও সরকার কোনওদিন তা করতে পারেনি, করবে না। সংখ্যালঘু ভাই-বোনেদের উদ্দেশ্য করে তাঁর দাবি, ‘হায়দরাবাদ থেকে বিজেপির এক বন্ধু এসেছে। আর ফুরফুরা শরিফের এক চ্যাঙড়াকে নিয়ে সে কয়েক কোটি টাকা খরচ করে কমিউনাল স্লোগান দিচ্ছে। আর হিন্দু মসলমানে ভাগাভাগির চেষ্টা করছে। আর মুসলমানের ভোটটাকেও ভাগাভাগির চেষ্টা করছে।’ তিনি জানান, সংখ্যালঘু এলাকায় কেউ অত্যাচার করতে এলে আজানের ধ্বনি দিতে। তিনি বলেন, ‘আমরা একসঙ্গে থাকি। এক সঙ্গে দুর্গাপুজো করি, একসঙ্গে কালিপুজো করি। একসঙ্গে ইফতার করি।’ নন্দীগ্রামে ভোট প্রসঙ্গে তাঁর বক্তব্য, ‘নন্দীগ্রামের গ্রামগুলিতে গিয়ে বিজেপি হুমকি দিয়েছে। বিজেপিকে আর চাই না। ভোটের পর ওরা পালাবে। আমরা বাংলার লোক, আমরাই থাকব।’

- Advertisement -

এদিন কুলপির জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তৃণমূল নেত্রী জানান, তাঁর মাঝে মাঝে ঘৃণা হয়, কোন বাংলায় তিনি আছেন। তিনি বলেন, ‘লজ্জা করে না ৫০০ টাকা নিয়ে বিজেপির মিটিং শুনতে যাব? ওদের হাত রক্তে রাঙা।’ বাংলার মানুষের উদ্দেশে তিনি জানান, বাংলার মানুষ মাথা নত করে না। তাঁর পা ড্যামেজ করে দিয়েছে। দু’দিন পর ব্যাংক থেকে টাকা পাওয়া যাবে না। নোটবন্দির মতো ব্যাংক বন্ধ হয়ে যাবে।

তারকেশ্বরের সভায় নন্দীগ্রামে ভোটের দিনের ঘটনা উল্লেখ করে মমতা দাবি করেন, ‘বয়ালে বিজেপির গুণ্ডারা আমায় ঘিরে রেখেছিল। পেট্রোল বোমা নিয়ে ঘিরে রেখেছিল ওরা। তিন ঘণ্টা বসেছিলাম। ভয় পাইনি।’