বন সহায়ক নিয়োগে দুর্নীতি নিয়ে নাম না করে রাজীবকে কটাক্ষ মমতার

221

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: ২০২১-এ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। তার ঠিক আগে চারদিনের উত্তরবঙ্গ সফরে এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উত্তরের মন জয়ে তিনি চেষ্টার কোনও কসুর রাখছেন না। বুধবার আলিপুরদুয়ারের প্যারেডগ্রাউন্ডে দলীয় কর্মীসভায় অংশ নেন তৃণমূল সুপ্রিমো। কর্মীসভার মঞ্চ থেকে দলত্যাগীদের তীব্র কটাক্ষ করেন তিনি। কয়েকদিন আগেই দিল্লিতে অমিত শা’র বাড়িতে গিয়ে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, বালির বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়া, প্রবীর ঘোষাল, রথীন চক্রবর্তী। তারও আগে শুভেন্দু অধিকারী, মিহির গোস্বামী, শুক্রা মুণ্ডা সহ আরও বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতা ঘাসফুল ছেড়ে পদ্ম শিবিরে নাম লেখান। নাম না করে তাঁদের এদিন কটাক্ষ করেছেন মমতা।

দলনেত্রী এদিন বলেন, ’ভোগীদের বেরোনোর দরজা খোলা। যাঁরা চলে যেতে চান, চলে যান। তৃণমূলে ভোটের টিকিট টাকায় বিক্রি হয় না। তৃণমূল শৃঙ্খলাবদ্ধ হয়ে থাকবে।’ বন সহায়ক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন রেঞ্জ ও বিট অফিসে প্রায়ই বিক্ষোভ হচ্ছে। সঠিকভাবে বন সহায়ক পদে নিয়োগ হয়নি, এমন অভিযোগ তুলে বার বার বিক্ষোভ দেখিয়েছেন আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ি জেলার বনবস্তির বাসিন্দারা। নিয়োগ-দুর্নীতি নিয়ে এদিন নাম না করে প্রাক্তন বনমন্ত্রী তথা সদ্য দলত্যাগী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে তোপ দাগেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তিনি জানান, দুর্নীতির তদন্ত চলছে।

- Advertisement -

তবে যেটা আশ্চর্যের সেটা হল, দীর্ঘদিন ধরে বন সহায়ক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে বিক্ষোভ চললেও দপ্তরের মন্ত্রীর দিকে কেউই আঙুল তোলেননি। কিন্তু দপ্তরের মন্ত্রী মাত্র কয়েকদিন আগে দলবদল করে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতেই যেভাবে মুখ্যমন্ত্রী তদন্তের হুঁশিয়ারি দিলেন, তা খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। বিভিন্ন ইস্যুতে বিজেপি-তৃণমূল তরজা তুঙ্গে। এই পরিস্থিতিতে রাজীবকে আক্রমণ করে মুখ্যমন্ত্রী কার্যত বিজেপিকেই বার্তা দিলেন বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

অন্যদিকে, এদিনের জনসভায় পরিযায়ী শ্রমিক, কর্মসংস্থান ইস্যুতে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি মোদি-শা’র দলভাঙানোর খেলাকেও কটাক্ষ করেছেন তিনি। রাজীব-বৈশালীদের গেরুয়া শিবিরে যোগদানের জন্য দিল্লি নিয়ে যেতে কয়েকদিন আগে বিশেষ বিমানের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কিন্তু লকডাউনের সময় পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরার জন্য কেন্দ্রের তরফে ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়নি, এদিন এমন অভিযোগও করেছেন দলনেত্রী।