হাসপাতালেই স্ত্রী ও নবজাতককে মারধর যুবকের, কামড়ালো পুলিশ কনস্টেবলকেও

221

শিলিগুড়ি, ২৫ অক্টোবরঃ মদ্যপ অবস্থায় হাসপাতালের বেডেই স্ত্রী ও নবজাতককে মারধরের অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। কর্তব্যরত পুলিশকর্মী তাকে বাধা দিতে গেলে মারধর করা হয় তাঁকেও। ওই পুলিশকর্মীর আঙুল কামড়ে মাংস তুলে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে যুবকের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার সকালে শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালের ঘটনা। খবর পেয়ে পুলিশ এসে ওই যুবককে আটক করে শিলিগুড়ি থানায় নিয়ে যায়। জখম পুলিশ কর্মীকে চিকিৎসার জন্য হাসাপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনার তদন্তে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, নৌকাঘাটের বাসিন্দা বিকাশ পাশোয়ান দু’দিন আগে তার অন্তঃসত্বা স্ত্রীকে শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে ভরতি করে। এরপর মালাদেবী পাশোয়ান একটি পুত্রসন্তান প্রসব করেন। হাসপাতাল কর্মীদের অভিযোগ, সন্তান হওয়ার পর থেকেই মদ খেয়ে এসে নানা ভাবে ঝামেলা করছিল ওই যুবক।

- Advertisement -

প্রথমে তাকে বুঝিয়ে ফেরত পাঠানো হলেও বৃহস্পতিবার সকালে ফের হাসাপাতালে এসে লেবার রুমে ঢুকে স্ত্রী ও পুত্রকে মারধর করতে থাকে। কর্তব্যরত নার্স বাধা দিতে গেলে, তাঁর ওপরও চড়াও হয় সে। খবর পেয়ে বিনীত লামা নামে এক কনস্টেবল ঘটনাস্থলে যান। তিনি বিকাশকে বুঝিয়ে সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া র চেষ্টা করলে কনস্টেবলের ওপরই চড়াও হয় বিকাশ। প্রথমে ধাক্কা মেরে সরিয়ে দেয় কনস্টেবলকে। পড়ে তার আঙুল কামড়ে ধরে। ওই কনস্টেবল যন্ত্রণায় চিৎকার করলে বেসরকারি নিরাপত্তারক্ষী ঘটনাস্থলে এসে লাঠি দিয়ে বিকাশকে মারলে সে আঙুল ছেড়ে দেয়। জানা গিয়েছে, ওই কনস্টেবলের আঙুলের হাড় ভেঙে গিয়েছে।