রায়গঞ্জ, ১০ মেঃ এক গৃহবধূকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল শিক্ষক স্বামীর বিরুদ্ধে। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ইটাহার থানার বটতলা এলাকায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় স্ত্রীর সঙ্গে বচসার জেরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে ওই ব্যক্তি তাঁর স্ত্রীকে কোপায়। গৃহবধূর চিৎকার শুনে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। এদিন রাত সাড়ে আটটা নাগাদ রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে মৃত্যু হয় ওই গৃহবধূর‌। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতের নাম আয়েশা সিদ্দিকা (২৩)। অভিযুক্ত স্বামীর নাম তফিজুল হোসেন। তিনি স্থানীয় হাইস্কুলের ইংরেজি শিক্ষক। বর্তমানে পলাতক। মৃতার বাবা আজগর আলি বলেন, ‘বিয়ের পর থেকেই তফিজুল আমার মেয়ের ওপর শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন চালাত।’ পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, ‘অভিযুক্ত শিক্ষকের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।’ পণ জনিত কারণেই ওই গৃহবধূ খুন হয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান।