ধার, ১৬ মেঃ মধ্যপ্রদেশের ধার জেলায় বিবাহিত মহিলার সঙ্গে প্রেমের অভিযোগে প্রেমিক ও তাঁর দুই খুড়তুতো বোনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে লাঠি দিয়ে পেটানো হল। তাঁদের মধ্যে একজন নাবালিকা। অভিযোগের তির ওই মহিলার স্বামী মুকেশের দিকে। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মুকেশের স্ত্রীর সঙ্গে এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত মঙ্গলবার ওই যুবকের সঙ্গে পালিয়ে যান অভিযুক্তের স্ত্রী। সেই কাজে সাহায্য করে ছিল ওই যুবকের দুই খুড়তুতো বোন। সালিশির বাহানায় তাঁদেরকে বাড়িতে ডেকে অভিযুক্ত স্বামী ও তাঁর পরিবারের লোকজন ওই যুবক ও তাঁর দুই বোনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারতে শুরু করে। আর সেই ঘটনা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখল শতাধিক মানুষ। সাহায্য করার বদলে কেউ করেছে ভিডিয়ো, কেউ তুলেছে ছবি। তার মধ্যে একজন সেই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করতেই চোখের নিমেশে তা ভাইরাল হয়ে যায়।

সিএসপি সঞ্জয় মুভেল বলেছেন, ‘ ৯ জন অপরাধীর বিরুদ্ধে পসকো ধারায় মামলা রজু করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ৫ জনকে গ্রেফতার করে জেলে পাঠানো হয়েছে। বাকি চার অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।’