ক্ষুদ্র দুর্গা প্রতিমা তৈরি করে গিনেস বুকে নাম তুলতে উদ্যোগী মানস

235

রায়গঞ্জ: ৫ মিলিমিটার এবং ৩ মিলিমিটার দুর্গা বানিয়েও গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ডে নাম তুলতে পারেননি। এবারে তাই ২ মিলিমিটার দুর্গা প্রতিমা তৈরির কাজ শুরু করেছেন রায়গঞ্জের শিল্পী মানস রায়। তাঁর বিশ্বাস এবার তিনি লক্ষ্যে পৌঁছোবেন। ইতিমধ্যে লিমকা বুক অফ ওয়ার্ল্ড এবং গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ডের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

ছোট ছোট জিনিস তৈরি করা তাঁর বহুদিনের শখ। বিভিন্ন ক্ষুদ্রাতি ক্ষুদ্র জিনিসের ওপর কখনও আঁকা, কখনও লেখা, আবার কখনও মূর্তি তৈরি করে চলেছেন রায়গঞ্জ শহরের বীরনগর এলাকার বাসিন্দা মানসবাবু। ২০১৯ সালে প্রায় চার মাসের বেশি সময় ধরে পাঁচ মিমি মাপের দুর্গা বানিয়েছিলেন। যোগাযোগ করেছিলেন গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ডের সঙ্গে। শেষ পর্যন্ত তিনি সফল হননি। ২০২০ সালে তিনি প্রায় ৬ মাসের চেষ্টায় তৈরি করেছিলেন ৩ মিমির দুর্গা। তবে, তাতেও সাফল্য আসেনি। এবারে ২ মিমির দুর্গা তৈরির কাজ শুরু করেছেন। দেশলাই কাঠির উপর খড়, মাটি ও আঠা দিয়ে দুর্গা, অসুর, সিংহ, লক্ষ্মী, সরস্বতী, গনেশ ও কার্তিকের রূপ দেওয়ার চেষ্টা করছেন। বিগত দুই মাস ধরে লাগাতার পরিশ্রম করে মানসবাবু একচালা দুর্গা প্রতিমার রূপ দিতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

- Advertisement -

মানসবাবু বলেন, ‘এত ক্ষুদ্র দুর্গা আশাকরি এর আগে কেউ তৈরি করেননি। খালি চোখে প্রতিমা তৈরির কাজ শুরু করেছি দুই মাস হল। লিমকা বুক ওয়ার্ল্ড পার্সেল করে প্রতিমা পাঠাতে বলেছে। কারণ এত ক্ষুদ্র প্রতিমা ছবিতে আসবে না।‘