ম্যাঞ্চেস্টারের ড্র, ওলে আউটের দাবি

ম্যাঞ্চেস্টার : ক্ষোভের বারুদ জমে ছিল। তাতে আগুন দিল একটা সিদ্ধান্ত।

শনিবার প্রিমিয়ার লিগে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে প্রথম একাদশেই রাখেননি ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড কোচ ওলে গানার সোলসায়ার। বেঞ্চে ছিলেন আরেক তারকা পল পোগবাও। এভার্টনের মতো প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে কেন রোনাল্ডো শুরু থেকে খেললেন না, তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছেন সমর্থকরা। সবমিলিয়ে হতশ্রী ফুটবলে ক্রমেই বাড়ছে ওলে আউটের দাবি।

- Advertisement -

ম্যাচে অবশ্য শুরুতে এগিয়ে গিয়েছিল ইউনাইটেডই। দীর্ঘদিন পর লিগে প্রথম একাদশে খেলার সুযোগ পেয়ে তা কাজে লাগাগেন ফরাসি ফরোয়ার্ড অ্যান্থনি মার্শাল। ৪৩ মিনিটে ব্রুনো ফার্নান্ডেজের পাস থেকে দলকে এগিয়ে দেন তিনি। কিন্তু নিয়মিতভাবে এভার্টনের ডিফেন্সের পরীক্ষা নিতে পারেননি মার্শাল, এডিনসন কাভানিরা। বাধ্য হয়ে ৫৭ মিনিট নাগাদ রোনাল্ডোকে মাঠে আনেন ওলে। কিন্তু ততক্ষণে মাঝমাঠের দখল নিয়ে নিয়েছেন ডেমারাই গ্রে, অ্যান্থনি টাউনসেন্ডরা। ৬৫ মিনিটে টাউনসেন্ডের গোলে সমতা ফেরায় এভার্টন। শেষদিকে ডিফেন্ডার ইয়েরি মিনা গোল করলেও ভিএআর তা বাতিল করে। না হলে এক পয়েন্টও পেতেন না ওলেরা।

শেষ ম্যাচে ভিয়ারিয়ালের বিরুদ্ধে শেষদিকে রোনাল্ডো-ম্যাজিক দেখা গিয়েছিল। কিন্ত এদিন দ্বিতীয়ার্ধের মাঝে মাঠে এলেও নজর কাড়তে ব্যর্থ পর্তুগিজ মহাতারকা। বরং গোল করে তাঁর মতো করেই উদ্‌যাপন করলেন টাউনসেন্ড। যদিও ম্যাচ শেষে এভার্টনের এই মিডফিল্ডার রোনাল্ডোকে অসম্মানের অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন। তাঁর কথায়, ক্রিশ্চিয়ানো আমার আইডল। ওকে সামনে রেখেই বড় হয়েছি। এই গোল ও তার পরের উদ্‌যাপনে ওর প্রতি সম্মান জানিয়েছি। ৭ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে রয়েছে ইউনাইটেড।