ম্যাচ জিতেও চাপে ওলের ইউনাইটেড

ম্যাঞ্চেস্টার : ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিয়নের বিরুদ্ধে পাওয়া তিন পয়েন্টের পাশাপাশি একগুচ্ছ দুঃসংবাদ ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড শিবিরে। রবিবার রাতে ওল্ড ট্র‌্যাফোর্ডে ২-১ গোলে জিতেছে ইউনাইটেড। তবে ম্যাচ শেষে জানা গিয়েছে, চোটের জন্য বাকি মরশুম মাঠের বাইরেই কাটাতে হবে অ্যান্থনি মার্শিয়ালকে। এদিন চোট পাওয়ায় ইউরোপা লিগের নকআউটে গ্রানাডার বিরুদ্ধে মার্কাস র্যাশফোর্ডের খেলার সম্ভাবনাও কম। দলের চাপ বাড়িয়ে করোনা সংক্রামিত হয়েছেন ডিফেন্ডার এরিক বেইলি।

রবিবার ঘরের মাঠে ব্রাইটনের বিরুদ্ধে পুরো পয়েন্ট না পেলে চাপ বাড়ত ওলে গানার সোলসায়ারের ছেলেদের। ম্যাচের শুরুতে বেশ ব্যাকফুটেই ছিলেন তাঁরা। ১৩ মিনিটে ইউনাইটেড অ্যাকাডেমির প্রাক্তনী ড্যানি ওয়েলব্যাকের গোলে এগিয়ে যায় ব্রাইটন। গোল শোধ করতে ৬২ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় ইউনাইটেডকে। ব্রুনো ফার্নান্ডেজের পাস থেকে গোল করেন মার্কাস র্যাশফোর্ড। ৮৩ মিনিটে ম্যাসন গ্রিনউডের হেডে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত হয়। ৩০ ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত লিগ টেবিলের দুইয়ে ইউনাইটেড। এক ম্যাচ বেশি খেলে ৭৪ পয়েন্ট নিয়ে সকলের ধরাছোঁয়ার বাইরে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি।

- Advertisement -

এদিন জয়ে পর ওলে বলেন, এমনটা নয় যে, প্রথমবার আমরা পিছিয়ে পড়েও ম্যাচ জিতলাম। এটা এখন আমাদের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। তবে কেউই এমন পরিস্থিতিতে পড়তে চায় না। দলের মিডফিল্ডের ভুলেই গোল খেতে হয়েছে বলে মনে করছেন তিনি। পাশাপাশি গ্রিনউডের প্রশংসাও করেছেন ইউনাইটেড বস, ও দুর্দান্ত পারফর্ম করেছে। একাধিকবার ও গোলের সুযোগ তৈরি করেছে। একবার পোস্টে লেগেছে, একটা ওরা (বিপক্ষ) কোনওভাবে আটকেছে। আর যে গোলটা করেছে তা এককথায় অসাধারণ। মার্শাল ও র্যাশফোর্ডের অনুপস্থিতিতে গ্রিনউডের দায়িত্ব বাড়বে বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন ওলে।