আপাতত স্বস্তিতে মানিক ভট্টাচার্য, এখনই দিতে হবে না জরিমানা

134
সংগৃহীত ছবি

কলকাতা: আপাতত স্বস্তিতে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি মানিক ভট্টাচার্য। তাঁকে এখনই দিতে হবে না জরিমানার ৩ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা। সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশের ওপর ৪ অক্টোবর পর্যন্ত স্থগিতাদেশ জারি করেছে বিচারপতি সুব্রত তালুকদার ও বিচারপতি কেসং ডুমা ভুটিয়ার ডিভিশন বেঞ্চ।

২০১৪ সালের প্রাথমিকের টেটে ৬টি প্রশ্ন ভুল থাকার ঘটনায় পর্ষদ সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যকে ৩ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করেছিল কলকাতা হাইকোর্ট। ৩ সেপ্টেম্বর বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জানান, টেটে ৬টি প্রশ্ন ভুল ছিল। যাঁরা ওই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন, তাঁদের পুরো নম্বর দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখনও পর্যন্ত সেই নম্বর দেওয়া হয়নি। এতে চাকরিপ্রার্থীরা হেনস্তার শিকার হয়েছেন। সেই কারণে পর্ষদ সভাপতিকে জরিমানা করা হচ্ছে। বিচারপতি নির্দেশ দিয়েছিলেন, নিজের রোজগারের টাকায় মানিকবাবুকে জরিমানা দিতে হবে। তাঁকে ১৯ জন মামলাকারীর প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে দিতে হবে।

- Advertisement -

শুক্রবার সেই মামলার শুনানিতে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের তরফে আইনজীবী রাতুল বিশ্বাস বলেন, ‘প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ যোগ্য প্রার্থীদের চাকরি দেওয়ার জন্য যথেষ্ট সক্রিয়। কিন্তু এক শ্রেণির চাকরিপ্রার্থী মামলা পর মামলা করে এই প্রক্রিয়াকে কীভাবে বানচাল করা যায় সেই চেষ্টা চালাচ্ছেন।’

সকলের বক্তব্য শোনার পর এদিন ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, আপাতত সভাপতিকে জরিমানার টাকা দিতে হবে না। আগামী ৪ অক্টোবর ফের মামলার শুনানি।