রায়গঞ্জ জেলা সংশোধনাগারে করোনার থাবা, আক্রান্ত বহু বন্দি-কর্মী

206

রায়গঞ্জ: জেলা সংশোধনাগারে করোনার থাবা। আক্রান্ত বেশ কয়েকজন কর্মী সহ ৮০ জন বন্দি। আক্রান্তদের মধ্য়ে প্রায় ১০ জনের অবস্থা আশঙ্কজনক। তাঁদের রায়গঞ্জের কর্ণজোড়া কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই অবস্থায় রায়গঞ্জ জেলা সংশোধনাগারে বিচারাধীন বন্দিদের স্বাস্থ্যবিধি তোয়াক্কা না করেই কার্যত একসঙ্গেই ছোট্ট পরিসরে দিন রাত কাটাতে হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এর ফলে যে কোনও মুহূর্তে সংক্রমণের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সোমবারও করোনা পরীক্ষায় একাধিক মহিলা বিচারাধীন বন্দির শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। ইতিমধ্যেই প্রায় ৬০ জন বিচারাধীন পুরুষ বন্দি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। কিন্তু করোনায় আক্রান্ত হওয়া সত্ত্বেও যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।

সংশ্লিষ্ট জেলা সংশোধনাগার সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনা আক্রান্তদের পৃথক ঘরে রাখার কোনও পরিকাঠামো না থাকায় সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। যদিও ওই সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষের দাবি করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা ঠিকমতো চলছে। প্রয়োজনে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এবং কোভিড হাসপাতালের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করা হচ্ছে।

- Advertisement -

এই ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট জেলা সংশোধনাগারে সুপার রাজেশ মণ্ডল অবশ্য বলেন, ‘দুটি কোয়ারান্টিন সেন্টার করা হয়েছে। সেখানে তাদের রাখা হয়েছে। জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের তরফে ওষুধ, পিপিই কিট দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য দপ্তরে তরফে চিকিৎসক, ফার্মাসিস্ট, নার্স রয়েছেন। আতঙ্কের কোনও কারণ নেই। এই মুহূর্তে আমাদের কর্মী সহ ৮০ জন করোনায় আক্রান্ত।’ এদিকে, মুক্ত সংশোধনাগারে মোট ২৭ জন বন্দি রয়েছে। তারা প্রত্যেকে সুস্থ রয়েছে বলে দাবি জেল কর্তৃপক্ষের। বিচারাধীন বন্দির পরীক্ষা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে বন্দিদের নির্দিষ্ট ঘরে রাখার চেষ্টা চলছে। তবে কিছু সমস্যা রয়েছে তা দ্রুত সমাধান করা হবে বলে জানানো হয়েছে।