টেক্সাস, ৪ অগাস্ট : ফের আমেরিকায় বন্দুকবাজের হানায় প্রাণ গেল নিরীহ মানুষের। এবার ঘটনাস্থল টেক্সাসের এল পাসো। সেখানকার একটি শপিং মলে ঢুকে গুলি চালাতে শুরু করে এক যুবক। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ২০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। অন্তত ২৪ জনকে আহত অবস্থায় বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আহতদের মধ্যে শিশুও রয়েছে। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে মনে করছে স্থানীয় প্রশাসন। হামলাকারী যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কৃষ্ণাঙ্গদের প্রতি বিদ্বেষ থেকেই সে হামলা চালিয়েছে বলে প্রাথমিক অনুমান।

টেক্সাসের এল পাসো আমেরিকা-মেক্সিকো সীমান্তে অবস্থিত। ফলে সেখানে প্রচুর মেক্সিকান থাকেন। স্থানীয় সময় শনিবার সকাল ১০টা ৪০ মিনিট নাগাদ হঠাত্ই কৃষ্ণাঙ্গদের উদ্দেশ্য করে অশ্লীল মন্তব্য করতে করতে এক যুবক ওই সিয়োলো ভিস্তা মলে ঢুকে পড়ে। এরপর বন্দুক বের এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে থাকে সে৷ ঘটনায় মলে উপস্থিত ক্রেতা-বিক্রেতাদের মধ্যে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়৷ প্রাণ বাঁচতে তাড়াতাড়ি মল থেকে বেরোতে গিয়ে পদপিষ্ট হন অনেকে। গুলির আঘাতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় কয়েকজনের। হামলার ৬ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশের স্পেশাল ওয়েপনস এন্ড ট্যাকটিক্স বা সোয়্যাট টিম৷ মলটিকে ঘিরে ফেলেন তাঁরা৷ আততায়ীর সঙ্গে শুরু হয় গুলির লড়াই৷ শেষ পর্যন্ত আত্মসমর্পন করে ওই আততায়ী৷ পুলিশের পাশাপাশি ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে এফবিআই৷

পুলিশ জানিয়েছে আততায়ী যুবকের নাম প্যাট্রিক ক্রুসিয়াস। বয়স একুশ বছর। সে টেক্সাসের অ্যালেনের বাসিন্দা। সাড়ে ছশো মাইল দূর থেকে এল পাসোতে এসে সে কেন হামলা চালাল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, কৃষ্ণাঙ্গদের প্রতি বিদ্বেষ থেকেই ওই যুবক৷ ঘটনার আগের দিন সোশ্যাল মিডিয়ায় কৃষ্ণাঙ্গদের বিরুদ্ধে শ্লেষাত্মক মন্তব্যও করেছিল সে৷  হামলার নিন্দা করে মৃতদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷