ফালাকাটায় তৃণমূলে ব্যাপক রদবদল, কৃষক সংগঠনের বাড়তি গুরুত্ব

307

ফালাকাটা: ফালাকাটা বিধানসভা আসন দখলে রাখতে এবার নতুন মুখের উপরই ভরসা করতে হচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেসকে। গত ৫ অক্টোবর দলের ব্লক সভাপতি পদে সুভাষ রায়ের নাম ঘোষনা করা হয়। তবে পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি ঘোষনা না হওয়ায় এতদিন দলের ভিতরে নানা গুঞ্জন চলছিল। রবিবার ফালাকাটায় দলের ব্লক কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠক করে পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি ও অঞ্চল কমিটিগুলি ঘোষনা করে তৃণমূল।

গত ২৯ জুনও একবার সব কমিটি ঘোষনা করা হয়েছিল। একের পর এক দক্ষ ও প্রবীণ নেতৃত্বের প্রয়াণে বারবার কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে নতুন মুখকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। তবে এই আসনে বিজেপির তৎপরতায় তৃণমূলের নতুন মুখ আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে দলকে কতটা সাফল্য এনে দিতে পারবে তা নিয়ে সংশয়ও রয়েছে। আবার দলের অঞ্চল কমিটিতে রদবদল নিয়ে কোন্দলের সম্ভাবনা আছে। যদিও নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা এই আশঙ্কার কথা উড়িয়ে দিয়েছেন। এদিকে বিজেপির কৃষক সংগঠনের মোকাবিলায় ফালাকাটায় এদিন নির্বাচণের রণকৌশল নিয়ে সাংগঠনিক বৈঠক করে কিষান ও খেতমজদুর তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা কমিটি।

- Advertisement -

আলিপুরদুয়ার জেলার পাঁচটি বিধানসভা আসনের মধ্যে ফালাকাটায় তৃণমূলের সাংগঠনিক পরিস্থিতি এবার অনেকটাই বদলে গিয়েছে। দলের যে পরিচিত মুখগুলি এতদিন যেকোনও নির্বাচন পরিচালনা করত, এবার তাঁদের অধিকাংশরাই জীবিত নেই। এজন্য দলের শীর্ষ নেতৃত্ব ফালাকাটা নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন। বিধায়ক অনিল অধিকারির মৃত্যুর পর ব্লক সভাপতি পদে ছিলেন সন্তোষ বর্মন। লোকসভা ভোটে ভরাডুবির কারণে তাঁর নেতৃত্বে গত জুন মাসে ব্লক ও একাধিক অঞ্চল কমিটিতে নতুন মুখকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

কিন্তু দুর্গাপুজোর আগে সন্তোষ বাবুর প্রয়াণে দল ফের সংকটে পড়ে। নতুন মুখ হিসেবে গুয়াবরনগরের প্রাক্তন প্রধান সুভাষ রায়কে দলের ব্লক সভাপতি করা হয়। যুব তৃণমূলের ব্লক সভাপতির পদ খোয়ানোয় সঞ্জয় দাস দলের বিরুদ্বে প্রকাশ্যে বিদ্রোহ ঘোষনা করেন। কমিটি নিয়ে এভাবেই দলের কোন্দল প্রকাশ পায়। এদিকে কিছু অঞ্চল কমিটির ভূমিকা নিয়েও দলের অন্দরে প্রশ্ন ওঠে। বারবার বৈঠকের পর এদিন দলের তরফে সব কমিটি ঘোষনা করা হয়।

তৃণমূলের এবারের ব্লক কমিটিতে কিছু নাম সংযোজন হয়েছে। নতুন মুখ হিসেবে মিলন সাহা চৌধুরি ও জামালউদ্দিন আনসারিকে ব্লক সহ সভাপতি করা হয়। ২৪ জন ব্লক সম্পাদকের মধ্যে ৬ জন নতুন মুখ। এছাড়া ব্লক কমিটির সদস্য হিসেবে ৭ জনের নাম সংযোজন হয়েছে। ব্লক কমিটির কোষাধ্যক্ষ হয়েছেন ত্রিনাথ সাহা। ১২টির মধ্যে তিনটি অঞ্চল কমিটিতে রদবদল করা হয়। জটেশ্বর-২’এ শ্যামল কর, দেওগাঁও দক্ষিনে সুশেন বর্মন এবং ফালাকাটা-২’এর পূর্বাংশে দীপক সরকারকে অঞ্চল সভাপতি করা হয়। এই তিন সভাপতিই হলেন নতুন।

কিন্তু দলীয় সূত্রে খবর, ফালাকাটা-২’র পূর্বাংশে নয়া অঞ্চল সভাপতি নিয়ে দলের ভিতরে চাপা অসন্তোষ রয়েছে। যদিও ব্লক সভাপতি সুভাষ রায় বলেন, ‘কমিটি গঠন নিয়ে কোথাও কোনও কোন্দল বা সমস্যা নেই। প্রবীণ নেতৃত্বদের প্রয়াণে দলের ঘাটতি কাটিয়ে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে সবাইকে ঝাপিয়ে পড়তে বলা হয়েছে।’

এদিকে দলের কৃষক সংগঠনের জেলা স্তরের বৈঠকে এদিন জেলা সভাপতি প্রসেনজিৎ রায় ব্লক সভাপতিদের কাছ থেকে রিপোর্ট সংগ্রহ করেন। প্রসেনজিৎ বাবু বলেন, ‘ফালাকাটা সহ গোটা জেলার কৃষি অধ্যুষিত এলাকায় সংগঠনের নেতাকর্মীদের জনসংযোগ চালাতে বলা হয়েছে।’