লখনউ, ১৬ মেঃ এই রাজ্যে ভোটপ্রচারের সময় কমিয়ে দেওয়ার নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশেই দাঁড়ালেন বিএসপি নেত্রী মায়াবতী। তাঁর মতে, চাপের মুখে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। কমিশনের সমালোচনা করেছে কংগ্রেসও। তারা জানিয়েছে, নির্বাচন কমিশন নিরপেক্ষতা হারিয়ে ফেলেছে। মায়াবতী বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন পক্ষপাতদুষ্ট। বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভা আছে। ঠিক তার পরেই প্রচার বন্ধ হয়ে যাবে। যদি প্রচার নিষিদ্ধ করতেই হত, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে করা হল না কেন? কাজটা খুবই খারাপ হল। নির্বাচন কমিশন চাপের মুখে এই কাজ করতে বাধ্য হয়েছে।’ মায়া আরও বলেন, ‘ছক কষে প্রধানমন্ত্রী মোদী ও বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে টার্গেট করছেন।  এই ধরনের রাজনীতি খুব বিপজ্জনক ও অন্যায্য। দেশের প্রধানমন্ত্রীকে এমন কাজ শোভা পায় না।’ পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেস মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরোধী হলেও, নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে তারা বলেছে, ‘বিজেপির হেড কোয়ার্টার্স থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়। কমিশন তা পালন করে। কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন একসময় ছিল নিরপেক্ষ, বস্তুনিষ্ঠ। এখন তারা নিরপেক্ষতা হারিয়ে ফেলেছে।’