ময়নাগুড়ি, ২৩ ফেব্রুয়ারিঃ রবিবার রাতে ময়নাগুড়ি শহরের দলীয় কার্যালয় হয়ে তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ভোম্বল ঘোষের মৃতদেহ হুসলুডাঙ্গায় পৌঁছতেই এলাকাবাসীরা ক্ষোভে ফেঁটে পড়লেন। অভিযোগ, মল্লিকহাট, হুসলুডাঙ্গা বাজার, জোনাকুর বাড়ি ও ঘোষপাড়ায় অভিযুক্তদের বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। এমনকি তৃণমূল নেতাকে খুনের চেষ্টার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া তাপস রায়ের বাড়িতেও বিক্ষুদ্ধ জনতা আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। অন্তত ৭টি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। অভিযুক্তদের একাধিক বাড়িতে ভাঙচুরও চালানো হয়েছে। আগুন লাগার খবর পেয়ে ময়নাগুড়ি ও ধূপগুড়ি থেকে দমকলের ইঞ্জিন আসে ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি রাতে হুসলুডাঙ্গা বাজারে তৃণমূল কংগ্রেসের মল্লিকহাট বুথ সভাপতি ভোম্বল ঘোষকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় কোপানো হয়। তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, বিজেপি কর্মীরা পরিকল্পিতভাবে ভোম্বল ঘোষকে খুন করেছে। আহত তৃণমূল নেতাকে শিলিগুড়ির একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করানো হলেও, শনিবার দুপুর ১২টায় সেখানেই তিনি মারা যান। রবিবার রাতে এলাকায় উত্তেজনা চরমে ওঠে। খবর পেয়ে বিরাট পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।