রাজ্য সরকারের প্রস্তাব ফেরাচ্ছেন অশোক

296

শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ি পুরনিগমের প্রশাসকমণ্ডলীতে তাঁদের পাশাপাশি  তৃণমূলের পাঁচ কাউন্সিলারকে নেওয়ায় রাজ্য সরকারের প্রস্তাব ফিরিয়ে  দিচ্ছেন মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। শুক্রবার শিলিগুড়ি পুরনিগমের প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্যদের তালিকা ঘোষণার পরেই এই সিদ্ধান্ত নেয় সিপিএম।

রবিবার শিলিগুড়ি পুরনিগমের বর্তমান বোর্ডের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তাই শনিবার শেষ অফিস করবেন অশোকবাবুরা। করোনা পরিস্থিতির কারণে আপাতত কয়েকমাস যেহেতু নির্বাচনের কোনও সম্ভাবনা নেই, তাই কলকাতা পুরনিগমের মতো শিলিগুড়ি পুরনিগমেও প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্যদের নাম ঘোষণা করে শুক্রবার বিজ্ঞপ্তি জারি করে রাজ্য সরকার।

- Advertisement -

অশোকবাবুকে চেয়ারম্যান করে প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য হিসাবে রামভজন মাহাতো, মুন্সি নুরুল ইসলাম, মুকুল সেনগুপ্ত, শংকর ঘোষ, কমল আগরওয়াল, শরদিন্দু চক্রবর্তী, রঞ্জন সরকার, নান্টু পাল, রঞ্জন শীলশর্মা, দুলাল দত্ত, নিখিল সাহানির নাম ঘোষণা করা হয়। অর্থাৎ বর্তমান পুরবোর্ডের মেয়র, ডেপুটি মেয়র ও মেয়র পরিষদের সদস্যদের সঙ্গে বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকার সহ তণমূল কংগ্রেসের সব সিনিয়ার কাউন্সিলারকে প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য করা হয়েছে।

মেয়র অশোক ভট্টাচার্য বলেন, আমি প্রথম থেকে বলে আসছি বিজ্ঞপ্তি জারি না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলব না। আমার কাছে খবর ছিল, রাজ্য সরকার এই কাজই করবে। মন্ত্রীকেও বলেছিলাম, কলকাতার জন্য যা করেছেন শিলিগুড়ির জন্য সেটাই করবেন। মন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু যেভাবে শিলিগুড়ির মানুষকে এদিন অপমান করা হল তা নজিরবিহীন। বোর্ডের দায়িত্ব নেওযার পর প্রথমদিন যেভাবে আমাকে অপমান করা হয়েছিল শেষদিনেও সেরকম করা হল। আমি অবিলম্বে এই অর্ডার প্রত্যাহারে দাবি জানাচ্ছি।

বিষয়টি নিয়ে পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায দলনির্ভর রাজনীতি করেন না, নীতিনিষ্ট রাজনীতি করেন। যেহেতু অন্য পুরসভাগুলিতে পুরপ্রধানদের প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান করা হয়েছে তাই এখানেও মেয়রকে করা হয়েছে। মেয়র তাঁর যে সাতজন মেযর পরিষদের সদস্যদের নাম দিয়েছিলেন তাঁদের প্রত্যেককেই সদস্য করা হয়েছে। চেয়ারম্যান করা হয়েছে অশোকবাবুকেই। সঙ্গে তণমূলের সিনিয়ার কয়েকজন কাউন্সিলারকে রাখা হয়েছে। করোনার বিরুদ্ধে লড়াই এখন প্রধান কাজ। এই পরিস্থিতিতে অশোকবাবুরা প্রস্তাব গ্রহণ করবেন, কী করবেন না সেটা তাঁদের দলীয় সিদ্ধান্ত। তবে সিদ্ধান্ত দুর্ভাগ্যজনক।