অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ও সহায়িকাদের সাম্মানিক বৃদ্ধির দাবিতে সভা

189

মালবাজার: অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের সাম্মানিক বৃদ্ধির দাবিতে দাবি জোরালো করল পশ্চিমবঙ্গ অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ও সহায়িকা কল্যাণ সমিতি। বুধবার জলপাইগুড়িতে উদীচী কমিউনিটি হলে সমিতির তরফে বিশেষ সভার আয়োজন করা হয়। সভার শেষে সংগঠনের সভাপতি অঞ্জন মন্ডল সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত হয়ে জানান, দাবি আদায়ে প্রয়োজনে আন্দোলন করা হবে।

এদিন পশ্চিমবঙ্গ অঙ্গনওয়ারী কর্মী ও সহায়িকা কল্যাণ সমিতির জলপাইগুড়ি জেলার সভায় জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিনিধিরা যোগ দেন। অঙ্গনওয়ারী কর্মী ও সহায়িকাদের সাম্মানিক বৃদ্ধি করা সভার আলোচ্য বিষয় ছিল। এছাড়া কর্মীদের অবসরগ্রহণের পর ৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণের দাবি, প্রতিবছর ২০০ টাকা করে ইনক্রিমেন্ট, ৭৫ শতাংশ কর্মীদের সুপারভাইজার পদে অঙ্গনওয়াড়ি হতে পদোন্নতি করতে হবে। এছাড়াও মাধ্যমিক পাশ সহায়িকাদের ১০০ শতাংশ কর্মীদের পদোন্নতির সুযোগ দিতে হবে বলেও দাবি তুলে ধড়া হয়। মোট একুশ দফা দাবি তুলে ধরে ইতিমধ্যে বিভিন্ন স্তরে স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে সংগঠনের তরফে। সভায় সমিতির সভাপতি অঞ্জন মন্ডল ছাড়াও, মুখ্য উপদেষ্টা সুবীর সাহা, রাজ্য সম্পাদিকা সুমনা দত্ত, দার্জিলিং জেলার সহ-সভানেত্রী মৌসুমী ঘোষ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া মালতি টুডু এবং সাগরিকা বসুকে জলপাইগুড়ি জেলা কমিটির সভানেত্রী এবং সহ-সভানেত্রী দায়িত্ব দেওয়া হয়।

- Advertisement -

সম্মেলন মঞ্চে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সমিতির সভাপতি অঞ্জন মন্ডল উল্লেখ করেন, রাজ্যের ৪১৬ প্রকল্পের ২ লক্ষ সহায়িকা এবং কর্মী কর্মরত। সকলের জন্য দাবি আদায় নিয়ে আন্দোলন হবে। সকলের দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। পরবর্তীতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে অঞ্জনবাবু স্পষ্ট করেন করেন, আমরা দাবি করছি কর্মীদের সাম্মানিক বৃদ্ধি করে ১৮ হাজার টাকা এবং সহায়িকাদের সাম্মানিক বৃদ্ধি করে ১৫ হাজার টাকা করতে হবে। ৬৫ বছরে ছাঁটাই শব্দের পরিবর্তন ঘটাতে হবে। পাশাপাশি আধুনিক প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে শিক্ষার ভিত গঠনের সঠিক পরিকল্পনা, প্রতিটি অঙ্গনওয়ারি কেন্দ্রের পরিকাঠামোগত আধুনিক উন্নয়নের দাবিও তুলে ধরা হয়।