চাঁচলে বাস টার্মিনাসের দাবিতে মহকুমা শাসককে স্মারকলিপি

189

চাঁচল: চাঁচলে বাস টার্মিনাস সহ বিভিন্ন দাবিতে বৃহস্পতিবার মহকুমা শাসককে স্মারকলিপি দিলেন চাঁচল মার্চেন্ট অ‍্যাসোসিয়েশন, নাগরিক মঞ্চ ও চাঁচলের আওয়াজের সদস‍্য সহ স্থানীয়রা। উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার চাঁচল ডিপোটি দীর্ঘদিন ধরে ভাড়ায় চলছে। চাঁচল থেকে মাত্র দুই কিলোমিটার দূরত্বে কলিগ্রামে নিজস্ব জায়গায় উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার নয়া ডিপো নির্মাণ করছে রাজ‍্য সরকার। নয়া ডিপো কয়েক মাসের মধ‍্যে চালু হওয়ায় খুশি এলাকাবাসী। চাঁচলের আওয়াজ-এর আহ্বায়ক অভিজিৎ দাস জানান, প্রাণকেন্দ্র চাঁচল থেকে দুই কিলোমিটার দূরে রয়েছে কলিগ্রাম ডিপো। ডিপো থেকে উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বাস চলে। চাঁচলে বাস টার্মিনাস না হলে কলিগ্রামে রাতে ও ভোরবেলা বাস ধরতে চাঁচল সহ বিভিন্ন এলাকার মানুষের অসুবিধা হবে। তাঁদের দাবি, চাঁচল ডিপো স্থানান্তরিত হওয়ার আগে কলিগ্রামে নয়া ডিপোতে গ‍্যারেজের ও অন‍্যান‍্য কাজ হোক।

চাঁচল ডিপো ও স্টেট গ্যারেজ চাঁচল থেকে কলিগ্রামে স্থানান্তরিত হচ্ছে। প্রবীণ সমাজসেবক সীতারাম সাহা জানান, চাঁচলে স্টেট গ্যারেজ ও ডিপোর বর্তমান জায়গায় বাস টার্মিনাস করতে হবে। যাতে বাস এখান থেকেই ওঠানামা করে। মহাকুমা শাসকের দপ্তরে স্মারকলিপি জমা দেওয়ার পর চাঁচল মার্চেন্ট অ‍্যাসোসিয়শনের সভাপতি প্রাণ গোপাল পোদ্দার জানান, কলিগ্রামে নয়া ডিপোর নির্মাণের কাজ শুরু হওয়ার সঙ্গে দুই বছর ধরে এই দাবিতে আন্দোলন চলছে। মহকুমা শাসক সহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরের আধিকারিক এবং পরিবহণ মন্ত্রীর কাছে এই মর্মে দাবিপত্র দেওয়া হয়েছিল। এমনকি উত্তর মালদার সাংসদকেও বিষয়টি জানানো হয়েছে।

- Advertisement -

বাস টার্মিনাস সহ বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে এদিন চাঁচলের মহকুমা শাসকের হাতে একটি স্মারকলিপি তুলে দেওয়া হয়। মহকুমা শাসক সঞ্জয় পাল জানান, দাবিগুলি নিয়ে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা করা হবে। বিষয়টি রাজ্য সরকারকেও জানানো হবে।