জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বাসে করে বাড়ি ফিরলেন প্রচুর পরিযায়ী শ্রমিক

546

উত্তরবঙ্গ ব্যুরো, ১২ মেঃ লকডাউন শুরু হতেই ইটভাটার পরিযায়ী শ্রমিকরা কাজ হারান। এরপর প্রবল অর্থ সংকটকে সঙ্গী করেই পায়ে হেঁটে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলা এবং আসাম সহ একাধিক জায়গায় বাড়ি ফেরার জন্য রওনা হন৷ তবে সেই সকল শ্রমিকদের পুলিশ আটক করে। এরপর বিভিন্ন বাসে করে তাঁদের বাড়ি ফেরানোর প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু করা হয়েছে। মঙ্গলবার খড়িবাড়ি থেকে ১৫টি বাসে অসম সহ কোচবিহার জেলার মোট ৬০১জন পরিযায়ী শ্রমিককে নিজ নিজ বাড়িতে ফেরত পাঠান হল। শ্রমিকদের অধিকাংশের বাড়ি কোচবিহার,তুফানগঞ্জ, দিনহাটা ও শিতালকুচি এলাকায়। খড়িবাড়ি ব্লকের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক সুকান্ত নিয়োগী জানান, এদিন সন্ধ্যা পর্যন্ত অসম, তুফানগঞ্জ, দিনহাটা, শীতলকুচি, মাথাভাঙ্গার মোট ৬০১

জনকে ১৫টি বাসে দার্জিলিং জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নিজ নিজ বাড়িতে ফেরত
পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

- Advertisement -

অন্যদিকে, ফাঁসিদেওয়া ব্লকের বিধাননগর কুরবান আলী হাই স্কুলে শেল্টার হোমে আটকে থাকা থেকে প্রায় ১১০ জন শ্রমিককে নিয়ে কোচবিহারের উদ্দেশ্যে ৩টি বাস রওনা দেয়। ৭০ জন শ্রমিককে নিয়ে আসামের উদ্দেশ্যে ২টি বাস রওনা দিয়েছে। অন্যদিকে, ফাঁসিদেওয়া হাই স্কুলের শেল্টার হোম থেকে মোট ৪টি বাসে প্রায় ৯৪ জনকে নিয়ে কোচবিহারের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে। ১৯ জন শ্রমিক নিয়ে ১ টি বাস আসামের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এছাড়াও, ঘোষপুকুর মডেল স্কুলের শেল্টার হোম থেকে এদিন রাতে ৮টি বাস ২৭০ জন বিহার থেকে আসা শ্রমিকদের নিয়ে কোচবিহারের জন্য রওনা দিয়েছে। এদিন, কালিম্পং থেকে ২টি বাসে করে ৩০ জন পরিধায়ী শ্রমিক ফাঁসিদেওয়া এবং খড়িবাড়িতে ফিরলেন। এদিন দুপুরে তাঁদের ফাঁসিদেওয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নাম নথিভুক্ত করে হোম কোয়ারান্টাইন থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শক্তিনগরের বাসিন্দা সোনু লাল রায় কালিম্পং থেকে দর্জির কাজ করতে গিয়ে ফিরেছেন। খড়িবাড়ির বাসিন্দা সুখ লাল মন্ডল রাজমিস্ত্রীর কাজ করতে গিয়ে লকডাউনে কালিম্পংয়ে আটকে পড়েছিলন৷

প্রশাসনের উদ্যোগে বাড়ি ফিরতে পেরে শ্রমিকরা সকলেই খুশি। উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন নিগমের শিলিগুড়ি ডিভিশনাল ম্যানেজার দীপঙ্কর দত্ত জানিয়েছেন, প্রশাসনের তরফে বুধবার পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে বাস পাঠানোর জন্য এখনও পর্যন্ত কোনও নির্দেশ এসে পৌঁছায়নি। তবে, বেশ কিছু বাস রিজার্ভে রাখা হয়েছে। প্রশাসনের নির্দেশানুযায়ী সেগুলো পাঠানোর জন্য তাঁরা সবরকমভাবে প্রস্তুত রয়েছেন।