বিধায়কের কাছে ক্ষোভ উগরে দিলেন পরিযায়ী শ্রমিকরা

350

রায়গঞ্জ: কোয়ারান্টিন সেন্টারে খাবার বিলি করতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন কালিয়াগঞ্জের বিধায়ক তপন দেব সিংহ। বৃহস্পতিবার রায়গঞ্জ ব্লকের ১২ নম্বর বরুয়া অঞ্চলের সিজগ্রাম নিম্ন বুনিয়াদি বিদ্যালয়ের কোরান্টিন সেন্টারে খাবার বিলি করতে যান বিধায়ক। তাঁর সঙ্গে ছিলেন তৃণমূল নেতা অসীম ঘোষ। সে সময় কোয়ারান্টিন সেন্টারে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকরা কোয়ারান্টিন সেন্টারের অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ ও পরিকাঠামোহীনতার বিরুদ্ধে সরব হন। স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের বিষয়েও ক্ষোভ উগরে দেন পরিযায়ী শ্রমিক পরিবারের সদস্যরা।

শ্রমিকদের বক্তব্য, কোয়ারান্টিন সেন্টারে তাঁদের মানুষ বলে মনে করা হচ্ছে না। ঠিক মতো খাবার পাচ্ছেন না তাঁরা। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বা প্রশাসনের তরফে কেউই খোঁজ খবর নিচ্ছেন না। অথচ ভোটের সময় তাঁদের ডেকে পাঠানো হয় বলে বিধায়কের সামনেই অভিযোগ করেন পূর্ণিমা রায়। একই অভিযোগ করেন শিপ্রা শীল নামে আরেক পরিযায়ী শ্রমিক। তিনি বলেন, ভোটের সময় নয় বলে কেউ চিনছেন না। বিধায়ক তপন দেব সিংহ বলেন, এটি সরকারি কোরান্টিন সেন্টার না হওয়ায় সমস্যা হচ্ছে। বরুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ধর্মেশ্বর বর্মন জানান, আমরা পরিযায়ী শ্রমিকদের খোঁজ খবর রাখছি।

- Advertisement -

তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির জেলা সভাপতি গৌরাঙ্গ চৌহান বলেন, আমরা আজ রান্না করা খাবার দিলাম। আগামীদিনে আবার দেওয়া হবে। এই সার্কেলের সভাপতি অভিষেক দাস সংগঠনগত ভাবে শ্রমিকদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখবেন। উল্লেখ্য, এদিন সিজগ্রাম নিম্নবুনিয়াদি বিদ্যালয় ও কাচিমুহা বিদ্যালয়ে আশ্রয় নেওয়া পরিযায়ী শ্রমিকদের ভাত,ডাল,ডিম,সবজি,পাপড় খেতে দেওয়া হয়।