টোটো চালাচ্ছে কিশোররা, যাত্রী সুরক্ষা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে দিনহাটায়

280

প্রসেনজিৎ সাহা, দিনহাটা : দিনহাটা শহরের রাস্তায় বাড়ছে অদক্ষ কিশোর টোটোচালকদের দাপট। টোটো নিয়ে তাদের নিয়ম ভাঙার ছবি দেখে চিন্তিত শহরের বাসিন্দারা। আগের তুলনায় দিনহাটা শহরে টোটোর সংখ্যা একলাফে বেড়ে গিয়েছে অনেকটাই। এর ফলে একদিকে যেমন যানজট বেড়েছে, তেমনই কিশোরদের হাতে টোটোর নিয়ন্ত্রণ থাকায় দুর্ঘটনা ঘটার অভিযোগও উঠেছে। এই প্রবণতা নজরে আসায় প্রশাসনিক আধিকারিকদের কপালেও চিন্তার ভাঁজ ফুটে উঠেছে।

গত কয়েক বছরে দিনহাটায় টোটোর সংখ্যা বেড়েছে অনেকটাই। বর্তমানে দিনহাটা পুরসভায় প্রায় দুহাজরের কাছাকাছি টোটো চলাচল করে। কর্মসংস্থানের আশায় নবীন প্রজন্মের একাংশ এই টোটো চালিয়ে জীবিকা অর্জনের পথ বেছে নিয়েছে। তবে গত কয়েক মাস ধরে যে দৃশ্য সাধারণ মানুষকে ভাবিয়ে তুলেছে, তা হল অনেক সময় টোটো চালাচ্ছে বেশ কিছু কিশোর। বাসিন্দাদের অভিযোগ, প্রশাসন বিষয়টি দেখেও কোনও পদক্ষেপ করছে না। অথচ পথ সুরক্ষা আইন অনুয়ায়ী আঠারো বছরের কমবয়সিদের  গাড়ি চালানো অপরাধ। তখন কী করে অল্পবয়সিরা শহরের রাস্তায় টোটো নিয়ে ছুটে চলেছে, তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। বাসিন্দাদের অভিযোগ, ব্যস্ত রাস্তায় দ্রুতগতিতে টোটো ছোটানোর পাশাপাশি ট্রাফিক আইন, কোনও কিছুই মানছে  না এই চালকরা।

- Advertisement -

শহরের প্রবীণ বাসিন্দা শংকর চৌধুরী বলেন, শহরে যে পরিমাণ টোটো চলে, তাতে পথচলাই দায়। তার ওপর আঠারো বছরের নীচে কমবয়সি টোটোচালকরা যেভাবে টোটো চালায়, তাতে যে কোনও সময় বড় দুর্ঘটনাও ঘটতে পারে। আরেক বাসিন্দা মাধবী দে জানান, অনেক সময় বাচ্চাদের বিদ্যালয়ে পাঠাতে টোটোর ওপর ভরসা করতে হয়। সেক্ষেত্রে এরকম কিশোর চালক থাকলে চিন্তাটা অনেকটাই বেড়ে যায়। দিনহাটা মহকুমা তৃণমূল টোটো শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি বিশ্বজিৎ সাহা বলেন, আমরা এর আগেও একাধিক সম্মেলনে টোটোচালকদের এ বিষয়ে সতর্ক করেছি। তারপরেও যারা নিয়ম মানছে না, সংগঠনের তরফে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দিনহাটার ট্রাফিক ওসি প্রকাশ দাস জানিয়েছেন, বিষয়টিকে তাঁরা গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন এবং শীঘ্রই এ বিষয়ে কড়া পদক্ষেপ করা হবে।