উপপ্রধানের বাড়িতে অ্যাসিড হামলার অভিযোগ

163

মালদা: গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধানের বাড়িতে অ্যাসিড হামলার অভিযোগ উঠল মালদায়। দুষ্কৃতীরা মূল ফটকের লাইট বন্ধ করে জানালা দিয়ে ঘরের ভিতরে অ্যাসিড ছুড়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ। ঘটনার সময় বাড়িতে ছিলেন না উপপ্রধান। তবে অ্যাসিডের ছিটেফোঁটা গিয়ে পড়ে উপপ্রধানের ছেলের উপর। বড় কোনও দুর্ঘটনা না ঘটলেও অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচেন ওই যুবক। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে ইংরেজবাজারের কাজিগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েতের চণ্ডীপুর এলাকায়।

ঘটনাস্থলে ছুটে যায় ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। উপপ্রধানের বাড়ি থেকে অ্যাসিডের বোতল উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ। অ্যাসিড ছোড়ার সময় দুষ্কৃতীদের শনাক্ত করে ফেলেছেন বলে দাবি উপপ্রধানের ছেলের। দুষ্কৃতীদের গ্রেপ্তারের দাবি তুলে রাতেই ইংরেজ বাজার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন উপপ্রধান সহিদ ইসলাম ওরফে মন্টু। ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে চণ্ডীপুর এলাকাজুড়ে।

- Advertisement -

উপপ্রধান সহিদ ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘দুষ্কৃতীদের আমরা চিনতে পেরেছি। গ্রামেরই দুই যুবক আমার বাড়ির দরজার বড় লাইটের তার কেটে বাড়ির পিছন দিকের জানালার দিকে যায়। আমি তখনও বাড়িতে ফিরিনি। ওই ঘরে আমার ছেলে তখন কম্পিউটারে কাজ করছিল। জানালায় টোকা দেয় দুষ্কৃতীরা। এই সময় আমার ছেলে জানালা খুলে দেখতে গেলে একটা অ্যাসিড ভরা বোতল ছুড়ে মারে। আমার ছেলে সরে গেলে অ্যাসিডের বোতল ঘরের মেঝেতে ভেঙে যায়। গোটা ঘর ধোঁয়ায় ভরে উঠে। ছেলের গায়ে শীতের পোশাক থাকায় বেঁচে যায় সে। সামান্য জখম হয়েছে সে। আতঙ্কে বাড়ির বাইরে এসে চিৎকার শুরু করতে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। দুষ্কৃতীরা পিছনের পাচিল টপকে পালিয়ে যায়।’ প্রতিশোধ নিতেই তাঁর বাড়িতে অ্যাসিড হামলা চালানো হয়েছে বলে দাবি উপপ্রধানের। অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।