রেকর্ড গড়ে মিতালির মুখে দলের কথা

লন্ডন : কিছুক্ষণ আগেই মেয়েদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি রানের মালিক হয়েছেন। কিন্তু নিজের কৃতিত্ব নয়, সাংবাদিক সম্মেলনে এসে ভারত অধিনায়ক দলকে জেতানো নিয়ে কথা বললেন।

শনিবার রাতে ওরচেস্টারের নিউ রোড স্টেডিয়ামে তৃতীয় একদিনের ম্যাচে মিতালি রাজের অপরাজিত ৭৫ রানে ভর করে ইংল্যান্ডকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে ভারত। সিরিজ আগেই হাতছাড়া হলেও হোয়াইটওয়াশ এড়ানো গিয়েছে। পাশাপাশি ইংল্যান্ডেরই কিংবদন্তি শার্লট এডওয়ার্ডস (১০,২৭৩ রান)-কে সরিয়ে মোট রানের তালিকার মগডালে উঠে এসেছেন ভারতীয় ক্রিকেটের মিথু (১০,৩৩৭ রান)। ম্যাচের সেরা মিতালির অবশ্য বক্তব্য, আমাদের জয়ের জন্য একটা ভালো পার্টনারশিপ প্রয়োজন ছিল। দলে অনেক নবীন সদস্য আছে। আমি শুধুমাত্র তাঁদের গাইড করেছি।

- Advertisement -

ম্যাচ যত গড়িয়েছে, চাপ বেড়েছে। কিন্তু ঠান্ডা মাথায় রান তাড়া করতে দেখা গিয়েছে মিতালিকে। এ প্রসঙ্গে বললেন, এদিন রান তাড়া করাটা বেশ উপভোগ করেছি। শেষ পর্যন্ত থেকে ম্যাচটা জেতানোর পরিকল্পনা ছিল। তাই কোন বোলারের বলে কীভাবে খেলব তা ঠিক করে নিয়েছিলাম। আমি দলের জন্য ম্যাচটা জিততে চেয়েছিলাম। সতীর্থ স্নেহ রানা প্রসঙ্গে বললেন, দলে একজন অলরাউন্ডার থাকা সবসময় আশীর্বাদ। শুধু আজকের ম্যাচ নয়, গোটা সিরিজেই ও দুর্দান্ত পারফর্ম করছে।

দুদশকের বেশি জাতীয় দলের সদস্য। চারটি আলাদা দশকে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার বিরল নজিরও রয়েছে তাঁর নামের পাশে। কিন্তু তাতেও আত্মতুষ্ট নন মিতালি। উল্টে বলছেন, আমি এখনও মিডল অর্ডারে ব্যাট করতে ভালোবাসি। মাঝের ওভারে পিচে গিয়ে ভারতকে ম্যাচ জেতানো আমার প্যাশন। তবে আমার ব্যাটিংয়ে কিছু উন্নতির জায়গা রয়েছে। তা নিয়ে কাজ করছি। আমার ব্যাটিংয়ে নতুন কিছু বিষয় যোগ করতে চাই। আগামী বছর নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপ নিয়ে এখন থেকেই তৈরি হচ্ছেন তিনি।

সিরিজে প্রতি ম্যাচেই অর্ধশতরান সহ ২০৬ রান করা মিতালিকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়। তাঁকে সর্বকালের সেরা বলছেন নেটিজেনরা। তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা রয়েছে প্রতিপক্ষের কথাতেও। সিরিজের সেরা হওয়া ইংল্যান্ডের সোফি একলেস্টোনের কথায়, মিতালি একাই ম্যাচটা আমাদের হাত থেকে ছিনিয়ে নিয়ে গেল। পুরো সিরিজেই ও আমাদের ভুগিয়েছে।

মিতালি ভবিষ্যতেও এভাবে প্রতিপক্ষকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিন, চাইছেন অনুরাগীরা।