সিনেমার ডায়ালগে কি হিংসা ছড়ায়? মিঠুন মামলায় প্রশ্ন বিচারপতির

312

কলকাতা: আপাতত গ্রেপ্তার নয় মিঠুন চক্রবর্তীকে। এমনটাই নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। বিচারপতি কৌশিক চন্দ শুক্রবার এই নির্দেশ দিয়েছেন। রাজ্যের তরফে এদিন মামলার শুনানির আর্জি জানানো হয়। মানিকতলা থানার তদন্তকারী অফিসার আগামী সোমবার তাঁকে ফের ভার্চুয়ালি জিজ্ঞাসাবাদ করবেন বলে জানা গিয়েছে। এই বক্তব্যের পরই বিচারপতি জানান, আগামী বুধবার পর্যন্ত মামলার শুনানি স্থগিত রাখা হচ্ছে। তবে মিঠুন চক্রবর্তীকে আপাতত গ্রেপ্তার করা যাবে না।

এদিন মামলার শুনানিতে মিঠুন চক্রবর্তীর তরফে আইনজীবী মহেশ জেঠমালানি এবং অয়ন ভট্টাচার্য জানান, মিঠুন চক্রবর্তী কোনও রকম উসকানিমূলক বক্তব্য নির্বাচনি প্রচারে রাখেননি। তিনি তাঁর সিনেমার জনপ্রিয় ডায়ালগ বলেছেন ভক্তদের অনুরোধে। বিচারপতি চন্দ এই বক্তব্য শোনার পর হেসে ফেলেন। তিনি প্রশ্ন করেন, এই ধরনের মন্তব্যর জন্য কি হিংসা ছড়ায়? রাজ্যের তরফে তখন জানানো হয়, ওঁনার বিরুদ্ধে আরও তথ্য প্রমাণ জোগাড়ের চেষ্টা করা হচ্ছে। তখন বিচারপতি জানান, আপাতত মামলার শুনানি বুধবার পর্যন্ত স্থগিত থাকবে।

- Advertisement -

ভোটের সময় উসকানিমূলক মন্তব্য করার দাবিতে মিঠুন চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে মানিকতলা থানায় এফআইআর করেছিলেন মৃত্যুঞ্জয় পাল নামে এক ব্যক্তি। সেটা খারিজের দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টে গত ৮ জুন মামলা করেন মিঠুন চক্রবর্তী। ১১ জুন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষের বেঞ্চে শুনানি হয় মামলাটির। বিচারপতির নির্দেশে মানিকতলা থানা ইতিমধ্যেই একবার মিঠুন চক্রবর্তীকে ভার্চুয়ালি জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। ইতিমধ্যে বিচারপতিদের ডিটারমিনেশন পরিবর্তন হয়ে মামলাটি এসেছে বিচারপতি চন্দের বেঞ্চে। এই বেঞ্চেই এদিন শুনানিতে আগামী সোমবার ফের তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানানো হয় এদিন।

প্রসঙ্গত, হাইকোর্টের নির্দেশে ইতিমধ্যেই মিঠুন চক্রবর্তী ভার্চুয়ালি মানিকতলা থানার তদন্তকারী অফিসারের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হয়েছিলেন। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, বিজেপির হয়ে বিধানসভা ভোটের প্রচারকার্যে অংশগ্রহণ করতে যেখানেই তিনি গিয়েছেন ভক্তরা তাঁর সিনেমার জনপ্রিয় ডায়ালগ শোনার আবদার জানিয়েছেন। তাই তিনি শুনেয়েছেন। এখানে উসকানি দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।