তাদের করোনা ভ্যাকসিন প্রায় ৯৫ শতাংশ কার্যকর, দাবি মডার্নার

358

ওয়াশিংটন: ফাইজারের পর মডার্না। করোনা ভাইরাস (কোভিড ১৯) জয়ে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল বিশ্ব। আমেরিকাজুড়ে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলার মুহূর্তেই সুখবর শোনাল মার্কিন বায়োটেক ফার্ম মডার্না ইনকর্পোরেশন। সংস্থার দাবি, তাদের তৈরি টিকা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ৯৪.৫ শতাংশ কার্যকর। মডার্না জানিয়েছে, খুব শীঘ্রই তারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করবে, যাতে এই টিকা জরুরি চিকিৎসার জন্য ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়।

মডার্নার প্রেসিডেন্ট স্টিফেন হগ বলেন, এতদিনে আমরা এমন একটি ভ্যাকসিন পেতে চলেছি, যেটা কোভিড-১৯ থামিয়ে দিতে পারে। স্টিফেন হগের দাবি, তৃতীয় পর্বের পরীক্ষার পর দেখা গিয়েছে, তাদের তৈরি টিকা অনেক জটিল রোগের পাশাপাশি কোভিড-১৯কেও ঠেকিয়ে দিতে পারছে। এই টিকার কার্যকারিতা প্রমাণিত হওয়ায় করোনা দূরীকরণের সম্ভাবনা অনেকটা বেড়ে গেল বলে তিনি মনে করেন। হগ আরও জানান, মডার্নার পাশাপাশি অন্যান্য কয়েকটি সংস্থাও করোনার টিকা নিয়ে উল্লেখযোগ্য ফল পেয়েছে। তাঁর ধারণা, করোনাকে সাফল্যের সঙ্গে ঠেকাতে হলে কোনও একটা টিকা নয়, একাধিক টিকা ব্যবহার করতে হবে। এর আগে আর এক মার্কিন ওষুধ কোম্পানি ফাইজার দাবি করেছিল, তাদের তৈরি করোনা টিকা ৯০ শতাংশ কার্যকর।

- Advertisement -

মডার্নার টিকা সাধারণ শীতলীকারক ব্যবস্থাতেই রাখা যায়, কারণ ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ৩০ দিন এই টিকা কার্যকর থাকে। আর হিমাঙ্কের নীচে ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে রাখতে পারলে মডার্নার টিকা কার্যকর থাকবে পাক্কা ৬ মাস। ভারতের মতো দেশগুলি এতে লাভবান হবে। মডার্নার টিকার দুটি ডোজের দাম পড়বে আনুমানিক ৩৮ থেকে ৪৫ পাউন্ড। সেখানে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার এক একটি ডোজের দাম হতে পারে মাত্র ৩ পাউন্ডের মধ্যে। জনসন অ্যান্ড জনসন যে টিকা বের করছে তাঁর দাম ৮ পাউন্ডের বেশি হবে না। ফাইজারের টিকার দুটি ডোজের দাম পড়বে ৩০ পাউন্ড।

মডার্নার বিবৃতি থেকে জানা গিয়েছে, তাদের তৈরি পরীক্ষামূলক ভ্যাকসিনের কার্যকারিতার বিষয়টি এখনও প্রাথমিক তথ্যের ভিত্তিতে বলা হচ্ছে। ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের মানবপরীক্ষার অংশ হিসাবে আমেরিকার বিভিন্ন গোষ্ঠীর ৩০ হাজার মানুষের ওপর এই ভ্যাকসিনের পরীক্ষা চালানো হয়। চার সপ্তাহের ব্যবধানে ভ্যাকসিনটির দুটি ডোজ দেওযা হয় স্বেচ্ছাসেবকদের। করোনা উপসর্গ থাকা প্রথম ৯৫ জনের ওপর ভ্যাকসিনের কার্যকারিতার ফল বিশ্লেষণ করে সোমবার এ তথ্য জানানো হয়। মডার্নার বিবৃতি থেকে আরও জানা গিয়েছে, গুরুতরভাবে আক্রান্ত ১১ জনের ওপর এই ভ্যাকসিন প্রযোগ করা হলেও, ইমিউনাইজড কারও ওপর এখনও এটি প্রয়োগ করা হয়নি। ফলে পূর্ণাঙ্গ ফলাফল না আসা পর্যন্ত ভ্যাকসিনটির কার্যকারিতা নিয়ে পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।

মডার্নার চিফ মেডিকেল অফিসার টাল জাকস ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা নিয়ে বলেন, এর সামগ্রিক কার্যকারিতা অসাধারণ। আজকের দিনটা খুব স্মরণীয় হয়ে থাকবে। মডার্নার ওষুধ প্রাথমিকভাবে আমেরিকার বাজারেই মিলবে। আগামী বছরের আগে অন্য কোনও দেশে এটা সরবরাহ করা যাবে না। চলতি বছরে আমেরিকার বিভিন্ন প্রদেশে ২ কোটি টিকা সরবরাহ করা হবে। তবে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে আগামী বছরের মধ্যে ৫০ থেকে ১০০ কোটি টিকা তৈরি করবে মডার্না। মডার্নার টিকা পেতে সংস্থার সঙ্গে ইতিমধ্যে চুক্তি হয়েছে জাপান, কানাডা, সুইজারল্যান্ড, কাতার, ইজরায়েল এবং ইউরোপিয়ান কমিশনের।

এর আগে মার্কিন ওষুধ কোম্পানি ফাইজার ও জার্মান জৈবপ্রযুক্তি কোম্পানি বায়োনটেকের তৈরি করোনা টিকাকে ৯০ শতাংশ কার্যকর বলে দাবি করা হয়। ছটি দেশের ৪৩ হাজার ৫০০ স্বেচ্ছাসেবীর ওপর পরীক্ষা চালিয়ে এই ফল পাওয়া যায়।