তৃণমূলকে খোঁচা দিয়ে কোচবিহারের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ মোদির

158

শিলিগুড়ি: নির্বাচনি প্রচারে শনিবার শিলিগুড়িতে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শিলিগুড়ির কাওয়াখালির ময়দানে জনসভায় যোগ দিয়েছেন তিনি। চতুর্থ দফার ভোটে রণক্ষেত্র কোচবিহার। ভোট চলাকালীন দুপুর পর্যন্তই মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। এর মধ্যে রাজনৈতিক হিংসায় এক বিজেপি সমর্থকের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি। অন্যদিকে শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে মারা গেছেন চার জন। এদিন সভা থেকে প্রধানমন্ত্রী কোচবিহারের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করলেও খোঁচা দিতে ছাড়েননি।

এদিনের সভা থেকে তিনি জানিয়েছেন, কোচবিহারে যা হয়েছে খুব খারাপ হয়েছে। বিজেপির দিকে সমর্থন দেখেই তৃণমূলের গুন্ডাবাহিনী ক্ষেপে গিয়েছে। হিংসা করে বা কেন্দ্রীয় বাহিনীরকে আক্রমণ করে কিছু হবে না। তিনি কমিশনকে আবেদন জানিয়েছেন ঘটনার কড়া ব্যবস্থা নিতে।
প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, তিনি একটা ভিডিও দেখেছেন তৃণমূলের একজন মন্ত্রী ক্যামেরার সামনে মানুষকে ভয় দেখিয়ে বলছে বিজেপিকে ভোট দিলে দিদির লোক তাঁদের বাইরে ফেলে দেবে। এটাই দিদির ১০ বছরের শাসনের ফল। বাংলার সব মানুষ এখানেই থাকবে। দিদিই যাবেন। তাঁর সঙ্গে তোলাবাজ, কাটমানিও যাবে। তিনি জানান, উত্তরবঙ্গের মানুষ বুঝিয়ে দিয়েছে তৃণমূল যাচ্ছে ও বিজেপি আসছে। উত্তরবঙ্গের মানুষ তাঁকে অনেক ভালোবাসা দিয়েছে দাবি করে প্রধানমন্ত্রী জানান, তাঁর সৌভাগ্য তিনি আবার উত্তরবঙ্গে এসেছেন। যারা রোদে তাঁর সভায় যোগ দিতে এসেছেন তাঁদের কষ্ট বৃথা যাবে না বলেও ভাষণে উল্লেখ করেন মোদি।

- Advertisement -