নতুন শুরুর অপেক্ষায় মহম্মদ সামি

নয়াদিল্লি : স্যর ডনের দেশে অ্যাডিলেড টেস্টের সময় ব্যাট করতে গিয়ে চোট পেয়েছিলেন তিনি। কব্জিতে পাওয়া সেই চোট সারিয়ে সম্পূর্ণ ফিট মহম্মদ সামি। মাঠে নামার জন্য মুখিয়ে তিনি।

অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফিরে বেঙ্গালুরুর জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে দীর্ঘসময় রিহ্যাব করেছেন তিনি। গত ২০ মার্চ সেখান থেকে ফিট শংসাপত্র নিয়ে দিল্লি ফেরেন বিরাট কোহলির দলের সেরা পেসার সামি। আর সেখান থেকেই পাঞ্জাব কিংসের সংসারে ঢুকে পড়েছেন নতুন শুরু ও আরও সাফল্যের প্রত্যাশায়।

- Advertisement -

ইতিহাস ও পরিসংখ্যান বলছে, শেষ আইপিএলে মোট ২০টি উইকেট পেয়েছিলেন তিনি। বোলিং গড় ছিল ৮.৫৭। কিন্তু তারপরও লোকেশ রাহুলের দল চ্যাম্পিয়ান হয়নি। কারণ, দলের স্ট্রাইক বোলার হিসেবে একা পড়ে গিয়েছিলেন সামি। সতীর্থদের থেকে তেমন সাহায্য পাননি তিনি। এবারের আইপিএলে ছবিটা বদলাবে কিনা, সময় বলবে। যদিও সামি প্রবল আশাবাদী সাফল্যের ব্যাপারে। ভারতীয় পেসারের কথায়, আমি পুরো ফিট। মাঠে নামার জন্য তৈরি। অস্ট্রেলিয়ায় ব্যাট করতে গিয়ে চোট পাওয়াটা দুর্ভাগ্যজনক। কিন্তু বাস্তবকে মেনে নিতে হয়েছে আমায়। আর ওই চোটের জন্যই আইপিএল নিয়ে এবার ভাবনার সময়টা বেশি পেয়েছি। দেখা যাক কী হয়। পাঞ্জাবের হয়ে সাফল্যের ব্যাপারে আমি প্রবল আশাবাদী।

আসন্ন মরশুমের জন্য পাঞ্জাব কিংস জাই রিচার্ডস, রাইল মেরেডিথ, মোজেস এনরিকেকে দলে নিয়েছে। মনে করা হচ্ছে, কুড়ির ক্রিকেটে পারদর্শী তিন বোলারকে পাওয়ার পর সামির উপর থেকে চাপ কিছুটা হলেও কমতে পারে। সামির গলাতেও নতুনদের নিয়ে পজিটিভ মানসিকতার সুর। তাঁর কথায়, আমি বরাবরই পজিটিভ মানসিকতায় বিশ্বাসী। আসন্ন আইপিএল মরশুমটা ভালো যাবে বলেই আমার বিশ্বাস। দলের এবার অনেক নতুন ক্রিকেটার এসেছে, যাঁরা টি২০ ফর্ম্যাটে দক্ষ। তাই আসন্ন মরশুমে সাফল্যের ব্যাপারেও আমি আশাবাদী।