আবর্জনায় দূষিত হচ্ছে মরা রায়ডাক নদী

510

শিশির গুহ, তুফানগঞ্জ : তুফানগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্রে ৩, ৪ ও ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মরা রায়ডাক নদীতে আবর্জনা ফেলা হচ্ছে। ফলে নদীটি দূষিত হয়ে পড়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে নদীর জলজ বাস্তুতন্ত্র। অবিলম্বে নদীতে আবর্জনা ফেলা বন্ধ না করা হলে আগামীদিনে নদীটির অস্তিত্ব বিপন্ন হবে বলে পরিবেশপ্রেমীরা মনে করছেন। তুফানগঞ্জ পুরসভা অবশ্য বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে।

তুফানগঞ্জ পুর এলাকার প্রাণকেন্দ্র দিয়ে মরা রায়ডাক নদী বয়ে গিয়েছে। এই নদীর কাছেই রয়েছে তুফানগঞ্জ শহরের রানিরহাট বাজার ও বিবেকানন্দ বাজার। একশ্রেণির ব্যবসায়ী মাঝেমধ্যেই মরা রায়ডাক নদীতে আবর্জনা ফেলছেন। এরফলে নদীর পাড়ে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। এছাড়া, মরা রায়ডাক নদী রায়ডাক নদীর সঙ্গে মিলিত হওয়ায় সেই আবর্জনা রায়ডাক নদীতেও মিশছে। এইভাবে শহরের দুটি নদীই দূষিত হয়ে পড়ছে। বিষয়টি নিয়ে তুফানগঞ্জের সাধারণ মানুষের পাশাপাশি পরিবেশপ্রেমীদের ক্ষোভের পারদ চড়ছে। তুফানগঞ্জ-১ ব্লকের জীববৈচিত্র‌্য ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান সরোজকুমার পঞ্চানন বলেন, প্রাকৃতিক সম্পদ হিসেবে নদীকে বাঁচিয়ে রাখাই আমাদের নৈতিক কর্তব্য। তাহলেই বাস্তুতন্ত্র ঠিক থাকবে। এ বিষয়ে প্রশাসন ও পুরসভাকে যেমন ব্যবস্থা নিতে হবে, তেমনি ব্যবসায়ীদেরও এ বিষয়ে সচেতন হতে হবে। তাহলেই এই সমস্যা মেটানো সম্ভব হবে। তুফানগঞ্জের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের রায়ডাক পাড়বাঁধ এলাকার বাসিন্দা তথা পরিবহণকর্মী রাজা হোসেন বলেন, মরা রায়ডাক নদীর পাশে কারখানা, খাবারের দোকান প্রভতি রয়েে। নদীতে যেভাবে আবর্জনা ফেলা হচ্ছে, তাতে এলাকায় মশামাছির উপদ্রব বাড়ছে। এলাকায় অস্বাস্থ্যকর পরিস্থিতিও তৈরি হয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে স্থানীয় বাসিন্দারা অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। তাই মরা রায়ডাক নদীতে আবর্জনা ফেলা বন্ধ করা দরকার। তুফানগঞ্জের পুরপ্রধান অনন্তকুমার বর্মা বলেন, এই সমস্যা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

- Advertisement -