বিএসএফ ক্যাম্প সরানোর দাবিতে ৫০-এর বেশি পঞ্চায়েত সদস্যের পদত্যাগ

266

রায়পুর: সীমান্তরক্ষী বাহিনীর দুটি ক্যাম্প বসানোকে কেন্দ্র করে উত্তাল ছত্তিশগড়ের কানকর জেলার পাখানজোর। ক্যাম্প দুটি অন্যত্র স্থানান্তরিত করার দাবিতে আদিবাসী অধ্যুষিত ১০৩টি গ্রামের বাসিন্দারা বেশ কিছুদিন ধরেই আন্দোলন করছিলেন। তাঁদের সেই আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে পদত্যাগ করেছেন ওই অঞ্চলের ৪৬ জন প্রধান সহ ৫০ জনের বেশি পঞ্চায়েত সদস্য।

একটি জাতীয় সংবাদমাধ্যেমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, শনিবার পাখনজোর উপ বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দুটি চিঠির মাধ্যমে ৪৬ জন প্রধান সহ ৫০ জনের বেশি পঞ্চায়েত সদস্য পদত্যাগ করেছেন। সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, রাস্তার কাজকে সুরক্ষিত করার জন্য কৌশলগতভাবে পার্টাপুর-কৈলিবেদা গুরুত্বপূর্ণ রুটে কাটগাঁও ও কামডেরা গ্রামের কাছে বিএসএফ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

- Advertisement -

স্থানীয় সূত্রে খবর, কাটগাঁও ও কামডেরা গ্রামে দুটি বিএসএফ ক্যাম্প তৈরি হওয়ার পর থেকেই সমস্যার সৃষ্টি হয়। তাঁদের দাবি, ক্যাম্প দুটির সঙ্গে তাঁদের কোনও সমস্যা নেই, তবে সেগুলি এমন এক জায়গায় স্থাপন করা হয়েছে যেখানে তাঁদের দেব-দেবীদের বাস। এছাড়াও ওই এলাকাটি পঞ্চায়েতের সম্প্রসারিত এলাকার অন্তর্গত বলে অবিলম্বে ক্যাম্প অন্যত্র সরানোর দাবি জানান তাঁরা।

পুলিশ পক্ষের দাবি, আন্দোলকারীদের পিছনে মাওবাদীদের মদত রয়েছে। ২০২০ সালে বস্তার এলাকায় মাওবাদীদের দমন করার জন্য মোট ১৮টি নতুন বিএসএফ ক্যাম্প তৈরি করা হয়েছে। কাটগাঁও ও কামডেরা এলাকায় তৈরি হওয়া ক্যাম্পগুলি তাদেরই অন্তর্ভুক্ত।