গয়েরকাটাকে কেন্দ্র করে পৃথক ব্লক ঘোষণার দাবিতে আন্দোলন

447

গয়েরকাটা: বিস্তীর্ণ ধূপগুড়ি ব্লককে ভেঙে গয়েরকাটাকে কেন্দ্র করে পৃথক ব্লক ঘোষণা করা এবং সেই অফিস কৃষিপ্রধান এলাকা গয়েরকাটায় স্থাপনের দাবিতে আন্দোলনে নামলেন সাঁকোয়াঝোরা-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দারা। বুধবার এই দাবিতে গয়েরকাটায় ৪৮ নম্বর এশিয়ান হাইওয়েতে ‘মানব বন্ধন’ কর্মসূচি পালন করেন এলাকাবাসীরা। আন্দোলনরত এলাকাবাসীদের দাবি মুখ্যমন্ত্রী উত্তরবঙ্গে রয়েছেন। তাই তার গোচরে পুরো বিষয়টি আনতেই এই কর্মসূচি।

এদিনের কর্মসূচিতে শাসকদল তৃণমূল সহ বিজেপি ও বামফ্রন্টের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। গয়েরকাটা নাগরিক উন্নয়ন মঞ্চের সম্পাদক সঞ্জয় দেবনাথ বলেন, ‘গয়েরকাটার ওপর দিয়ে গিয়েছে এশিয়ান হাইওয়ে ৪৮, যার দরুণ এখানকার সঙ্গে প্রস্তাবিত ব্লকের সমস্ত গ্রাম পঞ্চায়েতের সুযোগাযোগ ব্যবস্থা রয়েছে এবং প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েত গয়েরকাটা থেকে সমদূরত্বে অবস্থিত। পাশাপাশি কৃষিপ্রধান একটি বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষ গয়েরকাটার ওপর দিয়ে যাতায়াত করেন। তাই সকলের সুবিধার্থে গয়েরকাটায় ব্লক অফিস স্থাপন করতে হবে। গয়েরকাটা এবং কৃষি বলয়ের মানুষের দাবি না মানা হলে এখানকার মানুষ ভোট বয়কটের পথে যেতে বাধ্য হতে পারেন।’

- Advertisement -

সাঁকোয়াঝোরা-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের শিল্প ও পরিকাঠামো সঞ্চালক গোপাল চক্রবর্তী বলেন, ‘আমরা সকালে কাগজে দেখি মুখ্যমন্ত্রীকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বানারহাটকে ব্লক করার জন্য। কিন্তু আমরা মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর কাছে দাবি জানাতে চাই সরকারের তরফে আগেই সিদ্ধান্ত না নিয়ে কোথাও ব্লক অফিস স্থাপন না করে আগে সমস্ত পরিস্থিতি খতিয়ে দেখা হোক। আমাদের বিশ্বাস গয়েরকাটাই ব্লক অফিস স্থাপনের জন্য উপযুক্ত জায়গা হিসেবে বিবেচিত হবে।’

তৃণমূলের সাঁকোয়াঝোরা-১ অঞ্চল সভাপতি সমীর পাল বলেন, ‘গয়েরকাটাতেই ব্লক অফিস স্থাপনের উপযুক্ত জায়গা এবং এখানে প্রচুর জমি রয়েছে পরিকাঠামো তৈরি করার জন্য। আমারা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এই বিষয়ে দাবি জানাচ্ছি।’

সিপিআইএম নেতা আশুতোষ দত্ত ও বিজেপি নেতা নিমাই দেবনাথ বলেন, ‘সরকারের উচিত ব্লকের পরিকাঠামো কোথায় তৈরি করলে ভালো হবে তা খতিয়ে দেখা এবং গয়েরকাটায় ব্লক অফিস স্থাপন করা।’