ফাঁসিদেওয়া, ১৩ এপ্রিলঃ গত পঞ্চায়েত ভোটে প্রিসাইডিং অফিসারের দায়িত্ব প্রাপ্ত রাজকুমার রায়ের রহস্য মৃত্যু প্রসঙ্গে ফের একবার সরব হলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। শনিবার দুপুরে বাগডোগরা বিমানবন্দরে নেমে তিনি শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের অন্তর্গত ফাঁসিদেওয়া ব্লকের করনগছ এলাকায় শিক্ষক তথা ভোটকর্মী রাজকুমার রায়ের পৈত্রিক বাসভবনে যান। আর সেখানে গিয়েই তিনি নির্বাচন কমিশনকে প্রশ্নের মুখে ফেলে দেন। মুকুল রায় বলেন, নিহত রাজকুমার রায়ের পরিবারের দাবি হল মৃত্যুর সঠিক কারন খুঁজে বের করা৷ যেটা এখনও অধরা রয়েছে। তিনি বলেন, কিভাবে রাজকুমার রায়ের মৃত্যু হল প্রশাসন সেই ব্যপারে সঠিক তদন্ত করুক। এই বিষয়ে কলকাতা উচ্চ আদালতে সিবিআই তদন্ত চেয়ে একটি মামলাও চলছে বলে তিনি জানান। এদিন রাজকুমারের পরিবারের বর্তমান পরিস্থিতি পরিদর্শন করতে যান তিনি। রাজকুমারের পরিবারের লোকদের জানান, উক্ত তদন্তের বিষয়ে যদি কোন প্রকার সাহায্যের প্রয়োজন হয়, তবে তিনি তা করবেন। পাশাপাশি, রাজকুমার রায় ওই পরিবারের একমাত্র উপার্জনশীল সন্তান ছিলেন। তার ভাই হেমন্ত কুমার রায়ের এক ছেলে এবং এক মেয়ে রয়েছে। তিনি তেমন কোন উপার্জন না করায়, সংসার স্বচ্ছল নয়। সমস্যার কথা ভেবে তার ভাইয়ের চাকরির ব্যাপারে সাহায্য করার আশ্বাস দেন তিনি। তাঁর সন্তানদের পড়াশোনোর ব্যাপারেও সাহায্যের প্রয়োজন হলে সেটাও তিনি করবেন। নির্বাচন কমিশনকে প্রশ্নের মুখে ফেলে মুকুল রায় বলেন, নির্বাচনের প্রাক্কালে এটা সুনিশ্চিত যে, যেখানে একজন প্রিসাইডিং অফিসারের কোন নিরাপত্তা নেই, সেখানে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তাও কিন্তু যথেষ্টই প্রশ্নের মুখে।

সংবাদদাতাঃ সৌরভ রায়