জাতীয় সড়কের ধারে বেআইনি দখলদার উচ্ছেদ অভিযানে পুরসভা

220

পুরাতন মালদা: জাতীয় সড়কের ধারে বেআইনি দখলমুক্ত করতে অভিযান চালালো পুরাতন মালদা পুরসভা প্রশাসক কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার সকালে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থেকে বেআইনি উচ্ছেদ অভিযান চালানোর উদ্যোগ নেয় পুরসভার প্রশাসক কার্তিক ঘোষ। এদিন সকাল থেকেই মঙ্গলবাড়ি ওল্ড মালদা রোডের বাচামারি মোড়ে বুলডোজার চালিয়ে ফের অভিযান শুরু হয়। রাজ্য সড়কের দুই ধারের সরকারি জায়গা থেকে বেশকিছু অস্থায়ী ঝুপড়ি এবং দোকানঘর উচ্ছেদ করা হয়। একাজে কিছু মানুষের অসন্তোষ তৈরি হলেও শহরের অধিকাংশ মানুষ এবং ব্যবসায়ীরা পুরসভা প্রশাসক কর্তৃপক্ষের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

কোনওভাবেই শহরের সড়ক সংলগ্ন সরকারি জায়গা দখল করে অস্থায়ী দোকান ঘর করা যাবে না বলেও সাফ জানিয়েছেন কার্তিক ঘোষ। তিনি বলেন, ‘বর্ষার মরশুমে শহরের নিকাশি ব্যবস্থা সচ্ছল করতেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। পুরাতন মালদা পুরসভার মঙ্গলবাড়ি রেলগেট থেকে মহানন্দা ব্রিজ পর্যন্ত ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের আশেপাশে যেসব জায়গা এখনও দখলমুক্ত হয়নি সেগুলো উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়েছে। যতদিন পর্যন্ত না দখলমুক্ত হচ্ছে ততদিন এই উচ্ছেদ অভিযান অব্যহত থাকবে।’

- Advertisement -

এদিকে পুরসভা কর্তৃপক্ষের এই অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়েছেন শহরের অধিকাংশ বাসিন্দারা। তাঁরা জানান, এরকম উদ্যোগ আরও আগে নেওয়া উচিত ছিল। যাই হোক যে উদ্যোগ এখন নেওয়া হয়েছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়। কারণ পুরাতন মালদা শহরের সামান্য বৃষ্টিতে যেভাবে জল জমছে তা দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে সাধারণ মানুষের পক্ষে। মঙ্গলবাড়ি রেলগেট থেকে মহানন্দা ব্রিজ পর্যন্ত জাতীয় সড়কের দুই ধারে বৃষ্টির জল দীর্ঘদিন ধরে জমে থাকছে। দুর্ঘটনাও ঘটছে। এর একমাত্র কারণ হল রাস্তার দু’ধারে বেআইনিভাবে দখল করে অস্থায়ী দোকান ঘর, পাকা ঘর তৈরি হওয়া। আবার অনেকেই নিজেদের বাড়ি, দোকান ঘরের সামনে মাটির আস্তরণ জমিয়ে রাখছে। যাতে তাদের বাড়ি এবং দোকানে জল ঢুকে না পরে। নিজেদের চিন্তা করতে গিয়ে গোটা শহরের সমস্যা টেনে আনছে।

পুরাতন মালদা পুরসভার প্রশাসক কার্তিক ঘোষ জানান, জাতীয় সড়ক এবং রাজ্য সড়কের দু’পাশে যেখানে সরকারি জায়গা রয়েছে সেগুলোতে পুরসভার উদ্যোগে নিকাশি নালা তৈরি হবে। সরকারি জায়গায় কোনওরকম বেআইনি নির্মাণ করতে দেওয়া হবে না। এবিষয়ে গত এক মাসেরও বেশি সময় ধরে মাইকিংয়ের মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে পুরসভার তরফে।