বাজারের ব্যাগকে হাতিয়ার করে আর লকডাউন অমান্য নয়, বাড়ি বাড়ি সবজির ভ্যান পাঠাবে পুরসভা

257

দিনহাটা, ৩ এপ্রিলঃ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাতে পুর এলাকার বাজারগুলিকে শহরের বিভিন্ন রাস্তার ধারে এবং পুরসভার তরফে পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন মাঠে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। প্রত্যেকটি দোকানের সামনে সামাজিক বৃত্ত এঁকে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু গত কয়েকদিন থেকে পুরসভার নিয়মকে তোয়াক্কা না করেই, এক শ্রেণির মানুষ বাজারে ভিড় বাড়াচ্ছিলেন। সেই কারণে সামাজিক দূরত্বের বিষয়টি প্রাধান্য পাচ্ছিল না। বিশেষ করে দিনহাটা শহরের চওড়াহাট ও প্রত্যুষা বাজার চত্বরে নিয়ম ভাঙার অভিযোগও উঠেছিল। প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে ১১টা পর্যন্ত বাজার খোলা থাকায় অনেকেই টাটকা সবজির জন্য বাইরে বেরিয়ে পড়তেন। আবার অনেকেই বাজারের ব্যাগকে হাতিয়ার করে, নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে অন্য কাজ সেড়ে আসতেন। ফলে স্বাভাবিকভাবেই পুরসভা এলাকার বাজারগুলিতে অপ্রত্যাশিত ভিড় বাড়ছিল। বিভিন্নমহলে বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছিল। এরপরই বিষয়টি জানতে শুক্রবার দিনহাটা পুরসভার চেয়ারম্যান উদয়ন গুহ গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিলেন। তিনি জানিয়েছেন, আগামী রবিবার থেকে বাসিন্দাদের জন্য পাড়ায় পাড়ায় সবজির গাড়ি যাবে। সেখানেই মিলবে সবজি ক্রয়ের সুবিধা। টাটকা সবজি সরবরাহের পাশাপাশি, ডিমের মতো অতি আবশ্যক পণ্যও পাওয়া যাবে বলে উদয়ন বাবু জানিয়েছেন। সবজির মূল্য বাজার দরের সমতুল্যই হবে বলে প্রশাসনের তরফে দাবি করা হয়েছে। এদিন পুরসভার এই উদ্যোগকে স্বাগত জানান দিনহাটা মহকুমা ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক রানা গোস্বামী।রানা বাবু জানিয়েছেন, এরফলে লকডাউন অনেকাংশে সফল হবে। স্থানীয়দের মতে, কিছু অসচেতন মানুষ এখন ঘরেই থাকতে বাধ্য হবেন। মারণ করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে দিনহাটা মহকুমা রক্ষা পাবে।