পণের টাকা না মেলায় গৃহবধূকে আগুন লাগিয়ে খুন, পলাতক স্বামী সহ ৪

98

রায়গঞ্জ: দাবি মতো পণের টাকা না মেলায় গৃহবধূকে বিষ খাইয়ে গায়ে আগুন দিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠল স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। শুক্রবার সকালে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে রায়গঞ্জ থানার মহিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কান্তর গ্রামে। প্রতিবেশীরা আশঙ্কাজনক অবস্থায় রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে বার্ন ইউনিটে কিছুক্ষণ চিকিৎসার পরই মৃত্যু হয় ওই বধূর। শনিবার তাঁর দেহ ময়নাতদন্ত করা হবে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই গৃহধূর নাম মনিকা মাহাতো(২২)। রায়গঞ্জ থানায় স্বামী বিশ্বনাথ মাহাতো সহ চারজনের বিরুদ্ধে এদিন সন্ধ্যায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যদিও অভিযুক্তরা বর্তমানে পলাতক। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বছর দুয়েক আগে কালিয়াগঞ্জের কুনোরের বাসিন্দা কনিকা মাহাতোর সঙ্গে রায়গঞ্জ থানার কান্তর গ্রামের বাসিন্দা বিশ্বনাথ মাহাতোর বিয়ে হয়। তাঁদের এক বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। বিয়ের ছমাস না গড়াতেই বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য চাপ সৃষ্টি করত বলে স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ।

- Advertisement -

রায়গঞ্জ থানার পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, ‘চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করছে, অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট নয়। অভিযুক্ত স্বামী বিশ্বনাথ মাহাতো ভিন রাজ্যে নির্মাণ শ্রমিকের কাজে কর্মরত। বিধানসভা ভোটের জন্য দিল্লি থেকে রায়গঞ্জের বাড়িতে এসেছে।‘

মৃতার আত্মীয় মহেন্দ্র মাহাতো বলেন, ‘পরিকল্পিতভাবে খুন করে পালিয়ে গিয়েছে জামাই সহ শশুর বাড়ির লোকজন। অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।‘