স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্ককে কাজে লাগিয়ে টাকা আদায় করতে গিয়ে খুন, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত

152

দিনহাটা: একমাসের মাসের মাথায় বড় আটিয়াবাড়ির এক ব্যবসায়ী খুনের কিনারা করল দিনহাটা থানার পুলিশ। ধৃতের নাম টুটুল সরকার(৩৫)। মৃত ব্যক্তির স্ত্রীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক ও টাকা লেনদেনের জেরেই ব্যবসায়ী নিরঞ্জন দেবনাথকে(৩৫) খুন করা হয়েছে বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান।

দিনহাটা থানা সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ১১ মে দিনহাটা থানায় বড় আটিয়াবাড়ির বাসিন্দা নিরঞ্জন দেবনাথের নামে একটি নিখোঁজের অভিযোগ হয়। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করতে গিয়ে ওই ব্যক্তির কল লিস্ট ঘেঁটে দেখা যায়, হারিয়ে যাওয়ায় দিন টুটুল সরকার নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে তার সাতবার ফোনে কথা হয়। এরপর দিনহাটা থানার পুলিশ স্থানীয়দের কাছে টুটুলের সম্পর্কে জানতে শুরু করে। এরপর ২৬ মে নিরঞ্জনবাবুর স্ত্রী শ্যামলী দেবনাথের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। তারপরই দিনহাটা থানার পুলিশের তদন্তে উঠে আসে নিরঞ্জনের স্ত্রী শ্যামলীর সঙ্গে ধৃত টুটুলের অবৈধ সম্পর্কের কথা। এই সম্পর্ককে সামনে রেখে একাধিকবার টুটুলের কাছে মোটা টাকা আদায় করে নিরঞ্জন। তা নিয়ে একাধিকবার দুজনের মধ্যে বচসাও হয়। এরপর ২ জুন টুটুল সরকারকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দিনহাটা থানায় নিয়ে আসে। পাশাপাশি মৃত ব্যবসায়ীর পরিবারের তরফে টুটুল সরকারের নামে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। সেই অভিযোগের ভিওিতে ওইদিনই টুটুলকে গ্রেপ্তার করে দিনহাটা থানার পুলিশ।

- Advertisement -

দিনহাটা থানার আইসি সঞ্জয় দও জানান, পুলিশি রিমান্ডে থাকাকালীন টুটুল নিরঞ্জনকে খুনের কথা স্বীকার করে নেয়। সে জানায় নিরঞ্জনের স্ত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ও টাকা সংক্রান্ত লেনদেনের কারণেই এই খুন। খুনের পর মৃতদেহটিকে ঘোকসাডাঙার রুইডাঙায় নিয়ে গিয়ে আগুন লাগিয়ে সে পালিয়ে যায় বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে। দিনহাটার অ্যাডিশনাল এসপি কুমার সানি রাজ জানান, ঠিক একমাসের মাথায় এই খুনের কিনারা করা সম্ভব হয়েছে।