সুশৃঙ্খল গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য সেনা অভ্যুত্থান, দাবি জুন্টার

158

ইয়াঙ্গন: মায়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান কখনই ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য হয়নি। বরং সুশৃঙ্খল গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য করা হয়েছে। বুধবার এমন সাফাই দিয়েছে, সেদেশের সেনাপ্রধান মিন আং লাংয়ের। তাঁর বক্তব্য, ক্ষমতা ধরে রাখতে তাঁরা সেনা অভ্যুত্থান ঘটাননি। বরং শিগগিরি সাধারণ নির্বাচন আয়োজন করে বিজয়ীর হাতেই ছেড়ে দেবেন দেশের শাসনভার। তবে ঠিক কবে এই নির্বাচন হবে সে সম্পর্কে তিনি কিছু বলেননি।

দেশে নতুন করে সেনা অভ্যুত্থানের পরে এই প্রথম জনতার উদ্দেশে বার্তা দিতে দেখা গেল সেনাপ্রধানকে। পাশাপাশি, এই প্রথম প্রকাশ্যেও এলেন তিনি। তাঁর দাবি, গত নভেম্বরে যে নির্বাচন হয়েছিল তাতে সু কি’র দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসি বা এনএলডি কারচুপি করে জিতেছিল। এমন দাবি অবশ্য জুন্টা আগেও করেছে। এদিকে দেশজুড়ে বাড়ছে প্রতিবাদ-বিক্ষোভের ঢেউ। ৩০টি শহরে ইতিমধ্যেই জারি হয়েছে কারফিউ। পাঁচ বা তার বেশি মানুষের জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। কিন্তু কারফিউ জারি করেও দমিয়ে রাখা যায়নি জনবিক্ষোভ। পথে নেমে পড়েছেন আন্দোলনকারীরা। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক স্তরেও চাপ ক্রমেই বেড়েছে। সব মিলিয়ে কিছুটা একঘরে বার্মিজ সেনা।

- Advertisement -