নিশিগঞ্জ, ৮ এপ্রিলঃ এক গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল নিশিগঞ্জে। মৃতার নাম পাপিয়া অধিকারী (৩০)। তিনি অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ছিলেন। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার রাতে পাপিয়াকে নিশিগঞ্জ প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে আসেন শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। তবে অনেক আগেই পাপিয়ার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান চিকিত্সকরা। মৃতার শ্বশুরবাড়ির লোকেরা জানান, গতরাতে পাপিয়াকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান তাঁরা। এরপর পাপিয়াকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। এদিকে, মৃতার বাপেরবাড়ির অভিযোগ, পাপিয়ার দেহে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পাপিয়াকে মারধর করে মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় মৃতার স্বামী ও ভাসুরকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

সংবাদদাতাঃ তাপস মালাকার