মোদির হাত ধরেই বাংলায় সংস্কৃতি ফিরবে, দাবি নাড্ডার    

238

রামপুরহাট: মোদির হাত ধরেই বাংলার সংস্কৃতির পুনঃপ্রতিষ্ঠা হবে, শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের স্বপ্ন সফল হবে। মঙ্গলবার দুপুরে তারাপীঠ সংলগ্ন চিলে সেতুর মাঠে আয়োজিত সভায় এমনই মন্তব্য করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা।

এদিন নির্দিষ্ট সময়ের বেশ কিছুটা দেরিতে তারাপীঠ থানার তারাপুর সরস্বতী শিশু বিদ্যামন্দির মাঠে নামে নাড্ডার হেলিকপ্টার। সেখান থেকে তিনি চলে যান তারাপীঠ মন্দিরে। মা তারার পুজো দিয়ে চিলে সেতুর মাঠের সভামঞ্চে উপস্থিত হন নাড্ডা। সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মধ্যপ্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র, মুকুল রায়, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অনেকে।

- Advertisement -

সভায় নাড্ডা বলেন, ’যত দিন যাচ্ছে বাংলার সংস্কৃতি নষ্ট হচ্ছে। আগে বলা হত, বাংলা যা আজ ভাবে, অন্যরা তা পরদিন ভাবে। কিন্তু এই সরকার বাংলার সুনাম নষ্ট করছে। আমার নামের সঙ্গে আরও দু-তিনটে নাম জুড়ে দিয়ে বক্তব্য রাখছেন মুখ্যমন্ত্রী। দিন কয়েক আগে ভাইপো শুভেন্দু সম্পর্কে যে ভাষা প্রয়োগ করেছেন, তা মুখে আনতে পারছি না। তৃণমূলের নেতা-নেত্রীদের ভাষা শুনে আমার দুঃখ হচ্ছে। এরা মানুষকে সম্মান দিতে জানেন না। অনেক হয়েছে মমতা। এবার পরিবর্তন চাইছে জনতা। প্রধানমন্ত্রী মোদির হাত ধরে বাংলা বদলাবে। স্বচ্ছ প্রকল্প নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বাংলায় আসেন। ৮৫০০ কোটি টাকা ব্যয়ে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ চলছে।‘

তিনি রাজ্য সরকারের দুর্নীতি প্রসঙ্গে বলেন, ‘বাংলায় সব কিছুতেই রাজনীতি। আমপানের টাকা চুরি করেছে সরকার। করোনার সময় চাল, ডাল পাঠিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু সেই চাল, ডাল মানুষের কাছে পৌঁছোয়নি। ওই চাল, ডাল তৃণমূল নেতাদের বাড়িতে পৌঁছে যায়।‘

নাড্ডা জানান, এই সরকার নকলের সরকার। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার নাম দিয়েছে বাংলা আবাস যোজনা, স্বচ্ছভারত অভিযানের নাম দেওয়া হয়েছে নির্মল বাংলা। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর মনটা নির্মল নয়। বলে রাখি, প্রকল্পের নাম বদলে কিছু হবে না। কারণ বাংলার মানুষের মন থেকে মোদির নাম বদলাতে পারবেন না।‘

ধর্ষণে এই রাজ্য প্রথম বলে দাবি করেন নাড্ডা। তাঁর দাবি, ‘ধর্ষণে বাংলা প্রথম। বিশেষ করে চা বাগানে আদিবাসীদের উপর ধর্ষণের মাত্রা বাড়ছে। এই সরকারের জন্য রাজ্যের কৃষকরা কৃষি ভাতা পাচ্ছেন না। তবে আমরা ক্ষমতায় আসার পর বিধানসভায় প্রথম যে সভা হবে, সেদিনই বাংলার ৭৪ লক্ষ কৃষককে ১৮ হাজার করে ভাতা দেওয়া হবে। ক্ষমতায় এলে আয়ুষ্মান ভারতে যুক্ত করা হবে রাজ্যের মানুষকে।‘