উত্তরাখণ্ডের পাশে রয়েছে সারা ভারত, টুইট প্রধানমন্ত্রীর

137
প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: উত্তরাখণ্ডে হিমবাহ ভেঙে তুষারধসের ঘটনায় উদ্বেগ্ন প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রশাসন দুর্গতদের সমস্ত রকমভাবে সাহায্য করার চেষ্টা করছে বলে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে। টুইটে প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, ‘উত্তরাখণ্ডের দুর্ভাগ্যজনক পরিস্থিতির বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছি। সারা ভারত উত্তরাখণ্ডের পাশে রয়েছে। সবাই যাতে নিরাপদে থাকেন, তার জন্য সারা দেশ প্রার্থনা করছে। প্রশাসনের আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলছি। এনডিআরএফ দল মোতায়েন করা, উদ্ধারকার্য এবং ত্রাণের বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছি।’

- Advertisement -

উত্তরাখণ্ডের চামোলি জেলার অলকানন্দ নদীর উপর হিমবাহ ভেঙে যাওয়ায় ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। দুপুর পর্যন্ত ১০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনও প্রায় ১৫০ জন নিখোঁজ বলে জানিয়েছে উত্তরাখণ্ড প্রশাসন। এদিকে, দ্রুতই বাড়ছে ধৌলিগঙ্গা নদীর জলস্তর। হরিদ্বার-হৃষিকেশে গঙ্গার জলস্তর বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। দেরাদুনেও হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। ধৌলিগঙ্গা এলাকায় রেনি গ্রামে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। উদ্ধারকাজের জন্য শতাধিক আইটিবিপি জওয়ানদের ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। ধসে ঋষিগঙ্গা নদীর উপর তৈরি হওয়া বিদ্যুৎ প্রকল্পটিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতির মুখে পড়েছে তপোবনও। তবে কতটা ক্ষতি হয়েছে তা এখনও পুরোপুরি স্পষ্ট নয়।

উত্তরাখণ্ডের বিপর্যয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা। টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘উত্তরাখণ্ডের প্রাকৃতিক দুর্যোগের বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। আইটিবিপি ও এনডিআরএফের ডিজিদের সঙ্গেও কথা বলেছি। সংশ্লিষ্ট সকল আধিকারিকরা যুদ্ধকালীন ভিত্তিতে উদ্ধার কাজ করছেন। এনডিআরএফ দলগুলি উদ্ধার কাজ শুরু করেছে। উত্তরাখণ্ডের এই দেবভূমিকে সব রকম সহায়তা প্রদান করা হবে।’

এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে টুইট করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। তিনি লিখেছেন, ‘উত্তরাখণ্ডে বিপর্যয়ের ঘটনায় গভীরভাবে শোকাহত ও অত্যন্ত দুঃখিত। নিহতদের পরিবারের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা। দুর্যোগে আহতদের দ্রুত এবং পূর্ণ পুনরুদ্ধারের কামনা করছি।’