দোভালের ফোনেই কাটল জট, পিছু হটল চিন

365

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকার প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা থেকে প্রায় ১-২ কিলোমিটার দূরে সরে গিয়েছে চিনা সেনা। এতে ভারত-চিন সীমান্তে প্রায় দু’মাস ধরে চলা উত্তেজনা কিছুটা কমবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। সরকারি সূত্রের খবর, চিনা সেনার পিছু হটার পিছনে রয়েছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। রবিবার দোভাল ও চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই ভিডিয়ো কলে প্রায় দুই ঘণ্টা কথা বলেন। সীমান্তে শান্তি ফেরানো ও ভবিষ্যতে গালওয়ান সংঘর্ষের মতো ঘটনা এড়ানোর বিষয়ে দু’জনের মধ্যে আলোচনা হয় বলে বিদেশমন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে। তারপরই সোমবার গালওয়ান উপত্যকা থেকে তাঁবু, সেনা সহ যুদ্ধের অন্য সরঞ্জাম সরাতে শুরু করেছে চিন।

সূত্রের খবর, প্যাট্রোলিং পয়েন্ট ১৪ থেকে ১-২  কিলোমিটার দূরে সরে গিয়েছে লালা ফৌজ। যদিও বিষয়টির উপর ভারত কড়া নজর রাখছে। দুই পক্ষই সীমান্তে শান্তি ফেরানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্তে এসেছে। যদিও এখনও পর্যন্ত সেনার পিছু হটার ব্যাপারে চিন বিস্তারিত কিছু জানায়নি।

- Advertisement -

উল্লেখ্য, পূর্ব লাদাখের ভারত-চিন সীমান্তে গালওয়ান উপত্যকায় প্রায় দু’মাস ধরে উত্তেজনা চলছে। ১৫ জুন রাতে চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হয়েছেন। তারপর থেকেই দু’দেশের সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকে। বিদেশমন্ত্রকের পাশাপাশি স্থানীয় পর্যায়ে বিবাদ মেটানোর চেষ্টা হলেও কোনও লাভ হয়নি। ভারতের তরফে ইতিমধ্যেই দেশ ও সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার স্বার্থে ৫৯টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লেহ ও লাদাখ সফরে যান। তারপরই লাদাখে আরও এক ডিভিশন সেনা মোতায়েন করা হয়। সীমান্ত বিবাদ ক্রমশ জটিল আকার নিচ্ছিল। এই পরিস্থিতিতে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অভিত দোভাল ও চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই-র মধ্যে ফোনালাপ সীমান্তে সংঘাত আপাতত কিছুটা কমাবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। সূত্রের খবর, দু’দেশের দুই উচ্চপদস্থ কর্তার মধ্যে আলোচনার পরপরই প্যাট্রোলিং পয়েন্ট ১৪ থেকে তাঁবু ও যুদ্ধের অন্য সরঞ্জাম সরিয়েছে চিনা সেনা।