শিলিগুড়ি, ১২ জুন : এন আর এস মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে জুনিয়র ডাক্তার নিগ্রহের জেরে মঙ্গলবার গোটা রাজ্যে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে চিকিৎসকদের কর্মবিরতিতে নাজেহাল সাধারণ মানুষ। এদিন সকালে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চরম দুর্ভোগে পড়েন রোগী ও তাঁদের আত্মীয়রা। বহির্বিভাগ থেকে প্যাথোলজি সবকিছুই বন্ধ। জুনিয়র ডাক্তারদের আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন সিনিয়র ডাক্তাররাও। ফলে দূরদূরান্ত থেকে আসা রোগীরা দিশেহারা। কয়েকজনকে দেখা গেল মেডিকেল চত্বরে মুমূর্ষু রোগীকে নিয়ে বসে বসে কাঁদছেন। জরুরি বিভাগ খোলা থাকলেও সেখানে জুনিয়র ডাক্তাররা ভিড় করে রয়েছেন। কোনো রোগী সেখানে গেলে তাঁর অবস্থা সত্যিই সংকটজনক কিনা তা খতিয়ে দেখে তারপর চিকিৎসা করা হচ্ছে। ফলে সেখানে প্রচণ্ড ভিড় থাকায় অনেকেই রোগীকে দেখাতে পারছেন না।

বেলা ১১টা নাগাদ বিউটি খাতুন নামে মহিলা প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে হাসপাতালে এলে তাঁকেও ভরতি নিতে অস্বীকার করা হয় বলে অভিযোগ। শেষপর্যন্ত প্রচার মাধ্যমের চাপে তাঁকে ভরতি করা হলেও বিউটির মা ববিতা খাতুন অভিযোগ করেন, ভিতরে মেয়েকে মারধর করা হয়েছে। পরিস্থিতি ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে একের পর এক এমন অভিযোগকে কেন্দ্র করে। সব মিলিয়ে ডামাডোল অবস্থা চললেও কর্তৃপক্ষের অবশ্য কোনো হেলদোল নেই।

ছবি- উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ চত্বরে অসুস্থ বৃদ্ধকে নিয়ে অসহায় পরিবারের লোকজন।