দেশের ৬০ শতাংশ পড়ুয়া আজও হেঁটে স্কুলে যায়

271

নয়াদিল্লি : দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ৭৩ বছর কেটে গেলেও শিক্ষাব্যবস্থা সেই তিমিরেই রয়ে গিয়েছে। ভারতে আজও স্কুল পড়ুয়াদের অন্তত ৫৯.৭ শতাংশকে হেঁটে স্কুলে যেতে হয়। গ্রামাঞ্চলের পড়ুয়াদের অবস্থা শহরের চেয়ে খারাপ। হেঁটে স্কুলে যাওয়ার ক্ষেত্রে ছাত্রদের চেয়ে ছাত্রীরা পিছিয়ে রয়েছে। সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে ছাত্রদের মধ্যে ৫৭.৯ শতাংশ হেঁটে স্কুলে যায়, ছাত্রীদের ক্ষেত্রে এই হার ৬২ শতাংশ। এব্যাপারে শহর ও গ্রামের ভেদ রয়েছে। শহরাঞ্চলে ছাত্র ও ছাত্রীদের হেঁটে স্কুলে যাওয়ার হার যথাক্রমে ৫৭.৯ ও ৬২ শতাংশ। গ্রামের ছবিটা আরও করুণ। সেখানে ছাত্রদের ৬১.৪ শতাংশ এবং ছাত্রীদের ৬৬.৫ শতাংশ হেঁটে স্কুলে যেতে বাধ্য হয়। দেশের মাত্র ১২.৪ শতাংশ পড়ুয়া গণপরিবহণে স্কুলে যাওয়ার সুযোগ পায়। গ্রামাঞ্চলের ১১.৩ এবং শহরাঞ্চলের ১৫.৩ শতাংশ পড়ুয়া গণপরিবহণে স্কুলে যাতায়াত করে। গণপরিবহণে স্কুল পড়ুয়াদের কম ভাড়ায় যাতায়াতের ব্যবস্থা থাকলেও অর্ধেকের বেশি (৫১.৭ শতাংশ) পড়ুয়া সেই সুযোগ থেকে বঞ্চিত বলে সমীক্ষায় জানা গিয়েছে। শহরে ৫১.৩ এবং গ্রামে ৪২.৭ শতাংশ পড়ুয়া গণপরিবহণে কনসেশন পায় বলে জানা গিয়েছে। সমীক্ষায় অংশ নেওয়া গ্রামের ৯২.৭ এবং শহরের ৮৭.২টি পরিবার জানিয়েছে, প্রাথমিক স্কুল তাদের বাড়ির এক কিলোমিটারের মধ্যে। সম্প্রতি ন্যাশনাল স্ট্যাটিসটিকাল অর্গানাইজেশনের (এনএসও) রিপোর্টে স্কুল পড়ুয়াদের এই বেহাল দশা উঠে এসেছে।

প্রাথমিক স্তরের পড়ুয়াদের অবস্থা সবচেয়ে শোচনীয়। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে প্রাইমারি স্কুলগুলি ৭৭ শতাংশ পড়ুয়ার বাড়ির ২ কিলোমিটারের মধ্যে। প্রাইমারি এবং আপার প্রাইমারির ক্ষেত্রে যথাক্রমে ৮৩.৪ এবং ৭৫.৩ শতাংশ পড়ুয়ার বাড়ি স্কুলের ২ কিলোমিটারের মধ্যে। সেই মতো তারা বেছে নিয়েছে যাওয়া-আসার ব্যবস্থা। পাবলিক ট্রান্সপোর্টের ক্ষেত্রে বাস, ট্রাম, ট্রেন, মেট্রো, ফেরি, পুলকার এবং মাসিক ভাড়ার বাসের ওপরেই আস্থা রাখেন অভিভাবকরা। এছাড়া গ্রামীণ পড়ুয়াদের ১২.৬ শতাংশ সাইকেল ব্যবহার করে। শহরে মাত্র ৭.৬ শতাংশ পড়ুয়া স্কুল যাওয়ার সময়ে সাইকেল ব্যবহার করে থাকে। তবে শহরের পড়ুয়াদের ১২ শতাংশ তাদের অভিভাবকের অফিস থেকে দেওয়া গাড়িতে স্কুলে যাওয়া-আসা করে বলে সমীক্ষায় উঠে এসেছে। ন্যাশনাল স্ট্যাটিসটিকাল অর্গানাইজেশন হাউজহোল্ড সোশ্যাল কনজাম্পশন :

- Advertisement -

এডুকেশন-এর রিপোর্ট তৈরি করতে ওই সমীক্ষা করেছে দেশের ১ লক্ষ ১৩ হাজার বাড়িতে। ২০১৭ সালের জুলাই থেকে ২০১৮ সালের জুন মাসের মধ্যে ৮ হাজার গ্রাম এবং ৬ হাজার শহরে এই সমীক্ষা হয়। বিভিন্ন স্তরের প্রায় ১ লক্ষ ৫২ হাজার পড়ুয়াকে শামিল করা হয়েছিল এই সমীক্ষায়। অন্যদিকে, সেন্টার স্কোয়ার ফাউন্ডেশনের সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে, দেশে প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়ার সংখ্যা ২৫ কোটি ১০ লক্ষ এবং সেই শিক্ষার্থীর অর্ধেকের সামান্য বেশি (১৩ কোটি ১০ লক্ষ) পাঠরত সরকারি স্কুলে। বাকি ১২ কোটি পড়ুয়া বেসরকারি বিদ্যালয়ে।