চিন নয়, ভারতীয় টিকায় আস্থা নেপালের

334
ভারত ও নেপালের প্রধানমন্ত্রীর ফাইল ছবি।

নয়াদিল্লি: নেপালে করোনা সংক্রমণ রুখতে টিকা পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছে চিন। কিন্তু চিনের টিকা নেওয়ার আগ্রহ নেই নেপালের। দেশটি ভরসা রাখছে ভারতে তৈরি করোনা টিকায়। ভারতের কাছ থেকে নেপাল প্রাথমিকভাবে ১ কোটি ২০ লক্ষ টিকা চেয়েছে। ওই বিষয়ে কথা বলতে আগামী ১৪ জানুয়ারি দিল্লি আসছেন নেপালের বিদেশমন্ত্রী প্রদীপ গয়ালি। পড়শি দেশটিতে সরকার গঠন নিয়ে এখন বেশ টানাপোড়েন চলছে। গতমাসে সরকার বিরোধী বিক্ষোভের জেরে সংসদ ভেঙে দেন প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি। এই টালমাটাল পরিস্থিতির মধ্যেও টিকা নিয়ে আলাপ-আলোচনা চলছিল নয়াদিল্লির সঙ্গে কাঠমান্ডুর।

ভারত-নেপাল ষষ্ঠ যৌথ কমিশনের বৈঠকে যোগ দিতে নেপালের বিদেশমন্ত্রী আসছেন দিল্লিতে। ১৫ জানুয়ারি তাঁর সঙ্গে বৈঠক হবে ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরের। ওই বৈঠকে টিকা রপ্তানির বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ভারতের কাছ থেকে করোনা টিকা পেতে সংশ্লিষ্ট টিকা উৎপাদনকারী সংস্থা এবং স্বাস্থ্য আধিকারিকদের সঙ্গে কয়েক দফা বৈঠক হয়েছে নেপালের রাষ্ট্রদূত নীলাম্বর আচার্যের। জরুরি ভিত্তিতে সম্প্রতি ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভিড প্রতিষেধক কোভ্যাকসিন-কে ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্র। তা নিয়ে বিতর্কের মধ্যে সংস্থার এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর ভি কৃষ্ণমোহনের সঙ্গেও মঙ্গলবার বৈঠক করেন নীলাম্বর। গত কয়েক বছরে আর্থিক সাহায্য এবং পরিকাঠামোগত বিনিয়োগের জন্য নেপালে বহু টাকা ঢেলেছে চিন। একরকম যেচেই নিজেদের তৈরি করোনা টিকা সিনোভ্যাকও নেপালকে তারা সরবরাহ করার প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু নেপাল সেই প্রস্তাবে সাড়া দেয়নি।

- Advertisement -