বিজেপি থেকে বাঁচার দাওয়াই তৃণমূলের

391

ভাস্কর বাগচী, শিলিগুড়ি : বিজেপির ধাঁচে এবার ডিজিটাল মাধ্যমে জোর দিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। দলের পরামর্শদাতা প্রশান্ত কিশোরের নির্দেশে দলের যুব সংগঠনের ব্যানারে এবার কিউআর কোড স্ক্যান করে বিজেপি থেকে সুরক্ষিত রাখার পথ বার করা হয়েছে। নির্দিষ্ট লিংকে ক্লিক করলে ভোটারদের কাছে বিজেপি সম্পর্কে সতর্কবার্তা চলে আসছে। বিধানসভা ভোটের আগে এইভাবে মানুষের কাছে শুধু প্রচারই নয়, বিজেপি সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মনোভাবও জানার চেষ্টা করছে শাসকদল।

ডিজিটাল মাধ্যমে বিজেপি যে তাদের টেক্কা দেয়, তা পরোক্ষে স্বীকার করে বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। তৃণমূলও বুঝেছে, বিধানসভা ভোটের আগে বিজেপির সঙ্গে পাল্লা দিতে হলে ডিজিটাল মাধ্যমকে সক্রিয় করতে হবে। রাজ্যের বড় অংশের মানুষ এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয়। তাই সোশ্যাল মিডিয়াকে এখন বাড়তি গুরুত্ব দিচ্ছে তৃণমূল। বিহার বিধানসভার ফলাফলে বাড়তি অক্সিজেন পেয়েছে গেরুয়া শিবির। উলটোদিকে কিছুটা চাপে পড়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। মানুষের কাছে চটজলদি পৌঁছানোর জন্য সোশ্যাল মিডিয়াকে হাতিয়ার করছে গেরুয়াবাহিনী। রাজ্যের যেখানেই বিজেপির কোনও কর্মসূচি পুলিশ রুখে দিচ্ছে, সেখানে এমন পরিস্থিতি তৈরি করা হচ্ছে যা আপাতদৃষ্টিতে বিরুদ্ধে যাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেসের। ডিজিটাল মাধ্যমে সক্রিয় হওয়ায় বিজেপি পুলিশের আটকানোর ছবি ও ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় সঙ্গে সঙ্গে পোস্ট করছে। ফলে অনেক ক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের কাছে ভিন্ন বার্তা যাচ্ছে বলে মনে করছেন শাসকদলের অনেক নেতা। তাই তৃণমূলের রাজনৈতিক পরামর্শদাতা প্রশান্ত কিশোরের নির্দেশে  ডিজিটাল মাধ্যম মারফত দলের যুব সংগঠনের ব্যানারে মানুষকে একজোট করার পাশাপাশি বিজেপির প্রতি তাঁদের কী মনোভাব তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে শিলিগুড়িজুড়ে দার্জিলিং জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেস পোস্টার লাগিয়েছে। যেখানে লেখা রয়েছে, বিজেপির ঘৃণ্য রাজনীতি থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে চান? তাহলে কিউআর কোডে স্ক্যান করে বিজেপির থেকে সুরক্ষিত করার চিহ্নে ক্লিক করুন। ইতিমধ্যেই প্রায় ৯ লক্ষ মানুষ ক্লিক করে বিজেপি থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রেখেছেন বলে দাবি তৃণমূল যুব কংগ্রেসের। গোটা রাজ্যে তাঁদের টার্গেট ১ কোটি লোকের কাছে পৌঁছানো। কিউআর কোড স্ক্যান করলে আসছে পাঁচটি প্রশ্ন। সেখানে বলা হয়েছে, আপনি কি ঘৃণার বিরুদ্ধে? আপনি কি বিভেদের রাজনীতির বিরোধিতা করেন? আপনি কি একনায়কতন্ত্রের বিরুদ্ধে কথা বলবেন? আপনি কি অসাম্যের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান? আপনি কি ইচ্ছার সীমাবদ্ধতাকে প্রত্যাখ্যান করেন? বিজেপির কোন কোন জিনিস অপছন্দ করেন? পুরো কর্মসূচির নাম করা হয়েছে, মার্ক ইওরসেল্ফ, সেফ ফ্রম বিজেপি। এ বিষয়ে দার্জিলিং জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি কুন্তল রায় বলেন, আমাদের জেলায় এই কর্মসূচিতে ভালো সাড়া মিলছে। যাঁরা বিজেপি থেকে নিজেকে দূরে রাখতে চান, তাঁরা ওই কিউআর কোডে ক্লিক করছেন।

- Advertisement -