ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ভারতকে হুঁশিয়ারি কিউয়িদের

বার্মিংহাম : বাইশ বছরের ব্যবধানে বিলেতের মাটিতে টেস্ট সিরিজ জয়।

১৯৯৯-র পর ২০২১। সাফল্যের যে নজির গড়ে ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের আগেই ভারতকে কার্যত হুঁশিয়ারি নিউজিল্যান্ডের। ফাইনালের কথা মাথায় রেখে চোট পাওয়া কেন উইলিয়ামসনের সঙ্গে টিম সাউদি, কাইল জেমিসনরা বিশ্রামে। যদিও কিউয়িদের সাফল্যের বিজয়রথ তাতেও আটকায়নি।

- Advertisement -

দ্বিতীয় টেস্টের চতুর্থ দিনে আজ প্রথম সেশনেই ইংল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারিয়ে লক্ষ্যপূরণ। আত্মবিশ্বাসের পারদ চড়িয়ে এবার টার্গেট ডব্লিউটিসি ফাইনাল। প্রতিপক্ষ যেখানে বিরাট কোহলির ভারত। বিলেতে পা রেখে টিম ইন্ডিয়া যখন নিজেদের মধ্যে প্রস্তুতিতে ব্যস্ত, তখন ফাইনালের ড্রেস রিহার্সালেই সাফল্যের উড়ান। পুরস্কারস্বরূপ টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে ভারতকে (১২১) পিছনে ফেলে শীর্ষস্থান দখল নিউজিল্যান্ডের (১২৩)।

প্রস্তুতি ও মনস্তাত্বিক অ্যাডভান্টেজ- আত্মবিশ্বাসের পারদ কয়েকগুণ বাড়িয়ে নিল বিরাটদের প্রতিপক্ষ। ম্যাচের তৃতীয় দিনেই টেস্ট সিরিজ জয় নিশ্চিত হয়ে যায় ল্যাথামদের। কিউয়ি পেসারদের সুইংয়ে বেলাইন ইংল্যান্ড। আজ দিনের প্রথম বলেই গতকালের ১২২ রানে গুটিয়ে যায় থ্রি লায়ন্স। ওলি স্টোনকে (১৫) ফেরান ট্রেন্ট বোল্ট। এরপর ৩৮ রানের জয়লক্ষ্যে পৌঁছোতে খুব বেশি ঘাম ঝরাতে হয়নি।

ম্যাচের সেরা ম্যাট হেনরি। টিম সাউদি খেললে, যাঁর কিনা প্রথম একাদশে থাকারই কথা নয়। কিউয়ি রিজার্ভ বেঞ্চও যে তৈরি, তা পরিষ্কার হেনরির পারফরম্যান্স। ২০১৯-র ওডিআই বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে ভারত-বধের অন্যতম কারিগর হেনরি ম্যাচ শেষে এদিন বলেন, দারুণভাবে সিরিজটা শেষ হল। অতীতে ইংল্যান্ডে খেলেছি। এখানকার পিচ, পরিবেশ সম্পর্কে অভিজ্ঞতা আছে, যা আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছে।

রস টেলরের গলাতেও রিজার্ভ বেঞ্চ ও ফাইনালের কথা। নির্বাচকদের প্রশংসা করে বলেন, চোট এবং ফাইনালের আগে বিশ্রামের জন্য কয়েকটা রদবদল করা হয়। রিজার্ভ বেঞ্চ এবং ইয়ংস্টারদের জন্য পরীক্ষা ছিল। ওরা সফল। নতুন যে তিনটি পরিবর্তন করা হয়, তারা প্রত্যেকেই (উইল ইয়ং, ম্যাট হেনরি, আয়াজ প্যাটেল) সফল। ফাইনালের ব্যাকআপের প্রশ্নে দলের জন্য যা গুরুত্বপূর্ণ।