ফাঁসিদেওয়াতে আগ্নেয়াস্ত্র সহ গ্রেপ্তার ৯ জনের দুষ্কৃতী দল

150

ফাঁসিদেওয়া, ৪ মার্চঃ গোপন সূত্রের খবরের ভিত্তিতে অভিযানে নেমে আগ্নেয়াস্ত্র সহ ৯ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করল। বৃহস্পতিবার রাতে ফাঁসিদেওয়া থানার পুলিশ চটহাটের নিতাবাজার সংলগ্ন একটি পেট্টোল পাম্পের সামনে থেকে চারচাকা যাত্রীবাহী গাড়ি আটক করে। তল্লাশি চালাতেই ২টি অটোমেটিক পিস্তল, ৮টি তাজা কার্তুজ, ১টি কাটার উদ্ধার হয়। পুলিশের কাছে খবর ছিল, উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া থেকে কিছু দুষ্কৃতী হাপতিয়াগছ হয়ে ফাঁসিদেওয়ার দিকে রওনা দিয়েছে। সেই খবরের ভিত্তিতেই হাপতিয়াগছে পুলিশি অভিযান শুরু হয়। একইসঙ্গে নিতবাজার এলাকাতেও নাকা তল্লাশি শুরু করা হয়।

এদিন রাতে আগামী বিধানসভা নির্বাচনের জন্য চোপড়া ট্রাফিক পুলিশের সিজ করা ওই যাত্রীবাহী গাড়িটি পুলিশ সন্দেহের বশে আটক করার চেষ্টা করে। অভিযুক্তরা দ্রুতগতিতে ফাঁসিদেওয়া ব্লকের চটহাট বাঁশগাও কিশমত গ্রাম পঞ্চায়েতের তুফানডাঙ্গী এলাকা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। যদিও, শেষ পর্যন্ত ওই গাড়িটি পুলিশ আটক করে। পাশাপাশি, দুষ্কৃতীদের গ্রেপ্তার করতে সমর্থ হয়েছে। ধৃতদের কাছ থেকে ৮টি মোবাইল ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। একইসঙ্গে গাড়িটিও আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রের খবর।

- Advertisement -

আরও জানা গিয়েছে, ধৃতরা সকলেই চোপড়ার থানার এলাকার বাসিন্দা। তবে, তদন্তের স্বার্থে ধৃতদের নাম গোপন রেখেছে পুলিশ। সকল কিছু খতিয়ে দেখে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান দুষ্কৃতীরা ডাকাতির উদ্দেশ্যেই রওনা হয়েছিল। শুক্রবার অভিযুক্তদের পুলিশ হেপাজতের আর্জি জানিয়ে শিলিগুড়ি মহকুমা আদালতে তোলা হবে। ঘটনার খবর পেয়ে ডিএসপি (গ্রামীণ) অচিন্ত্য গুপ্ত, নকশালবাড়ির সার্কেল ইন্সপেক্টর সুদীপ্ত সরকার ঘটনাস্থলে পৌঁছান।

ব্লকে বেশ কয়েকটি ছিনতাই, ডাকাতির ঘটনা ঘটার পর সকলেই আতঙ্কে ছিলেন বলে মন্তব্য করে স্থানীয় বাসিন্দা মহম্মদ আফাত। চটহাট নিতাবাজার এলাকার বাসিন্দা সিপায়েত আলম বলেন, এলাকা থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ দুষ্কৃতী গ্রেপ্তারের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। আতঙ্কে রয়েছি। অন্যদিকে, ডিএসপি (গ্রামীণ) বলেন, কয়েকজনকে আগ্নেয়াস্ত্র সমেত গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে গোটা বিষয়টি তদন্ত করে দেখার পাশাপাশি, এই চক্রে আর কেউ জড়িত কিনা তাও গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে।