ভোট নিয়ে মাথা ব্যথা নেই ভোটেরহাটে

90

জলপাইগুড়ি: ভোট আসে, ভোট যায়। কিন্তু ভোটেরহাটের হাল বদলায় না। তাই স্বাভাবিকভাবেই ভোট নিয়ে সেরকম কোনও মাথাব্যথা নেই সেখানকার বাসিন্দাদের।

বাংলাদেশের পঞ্চগড় জেলা সংলগ্ন ভারতীয় গ্রাম ভোটেরহাট। ইংরেজ আমল থেকে এনামেই পরিচিত ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের কৃষি অধ্যুষিত এই গ্রাম। তবে স্বাধীনতার ৭৩ বছর পেরোনার পরও উন্নয়নের ছোঁয়া সেভাবে লাগেনি এই গ্রামে।

- Advertisement -

ভোটের হাটের বাসিন্দাদের অভিযোগ, চাহিদা মতো স্বাস্থ্যকেন্দ্র তৈরি করা হয়নি। রাতে কেউ অসুস্থ হলে ভ্যানে জলপাইগুড়ি নিয়ে যেতে হয়। বেশ কয়েকবার পথেই রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ধ্রুব রায় জানান, গ্রামে পাকা রাস্তা তৈরি করা হয়নি। কাঁচা রাস্তার কারণে বর্ষায় তাঁদের দুর্ভোগে পড়তে হয়। ভোটের মুখে নেতারা এসে প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু ভোটের পর কারও দেখা মেলে না। ডান-বাম কোনও পক্ষই ভোটের হাটের উন্নয়নে সেভাবে পদক্ষেপ করেনি বলে অভিযোগ।

দিলীপ রায় নামে আরেক বাসিন্দা ক্ষোভের সঙ্গে জানান, ভোটের হাটে উচ্চবিদ্যালয় স্থাপনের দাবি জানানো হলেও সেই দাবি আজও পূরণ হয়নি। স্বাভাবিকভাবেই বিষয়গুলি নিয়ে ভোটের মুখে ক্ষোভ জমছে এলাকায়। বঞ্চনার জবাব ভোটেরহাটের বাসিন্দারা এখন ভোট বাক্সে দেন কিনা, সেটাই দেখার।